ন্যায্য অধিকার আদায় করেছি : শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ভারত সফরে তুলনামূলকভাবে বাংলাদেশই লাভবান হয়েছে বেশি। শনিবার রাজধানীর খামারবাড়িতে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে মহিলা শ্রমিক লীগের সম্মেলন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, যদি ন্যায্য অধিকার আদায় করে থাকি আমি শেখ হাসিনাই করেছি।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বর্ডার এলাকার নদী মানে নদীতে ভারত এবং বাংলাদেশের সমান অংশীদার। সেখান থেকে তারা একটু খাবার পানি নেবে। সেইটা নিয়েই না কী নদী বেঁচে দিলাম। খুব আন্দোলন, স্লোগান, বক্তৃতা। একটা মানুষ যদি পান করার জন্য পানি চায়, দুশমন হলেও তো মানুষ তাকে পানি দেয়।সেটার জন্য এত কান্নাকাটি করার কী আছে’।

তিনি বলেন, যারা এত কাঁদছেন তাদের জিজ্ঞাসা করি, গঙ্গার পানি আনবার কথা দিল্লি গিয়ে খালেদা জিয়া ভুলে গিয়েছেন। কেউ তো আনলো না। তিস্তায় ব্যারেজ দিল ইন্ডিয়ারে শিক্ষা দিবে। এখন শিক্ষা দেওয়ার পরিবর্তে পানি ভিক্ষা চাইতে হচ্ছে। এই ছিল এরশাদের নীতি’, বলেন তিনি।

ভারতে এলপিজি রপ্তানির প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমাদের আমদানি করে আনা এবং দেশে উৎপাদিত কিছু এলপিজি বোতলজাত করে রপ্তানি করবো। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের রপ্তানির একটা পণ্য বাড়ছে। আর দেশের চাহিদা মেটানোর জন্য অনেকগুলো কোম্পানি কাজ করছে।’