লক্ষ্মীপুরে নদীতে ইলিশ শিকারের দায়ে ১৯ জেলে আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

লক্ষ্মীপুরের কমলনগর ও রামগতিতে মেঘনা নদীতে ইলিশ শিকারের দায়ে পৃথক অভিযান চালিয়ে ১৯ জন জেলেকে আটক করা হয়েছে। বুধবার (৯ অক্টোবর) দিনব্যাপী মৎস্য বিভাগ ও পুলিশের অভিযানে মেঘনার বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। এরমধ্যে কমলনগর থেকে ১৪ জন ও রামগতিতে ৫ জন।
পরে বিকেলে কমলনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইমতিয়াজ হোসেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আটক ১৪ জনকে ১ মাস করে কারাদ-ের আদেশ দেন।
সাজাপ্রাপ্তরা হলেন ভোলার চরগাজী এলাকার জেলে মো, ফারুক, আনোয়ার হোসেন, মো. আজগর, আলাউদ্দিন, লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চরকাদিরা গ্রামের আমির হোসেন, চরফলকনের মো. রিপন, মূসা কালিমুল্লাহ, চরজগবন্ধুর মো. হাসান, জাহাঙ্গীর, শাহিন, হেলাল, মো. সুজন, মো. আরিফ ও মো. গণি। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া প্রায় ২০ কেজি ইলিশ স্থানীয় মাদ্রাসা ও এতিমখানায় বিতরণ করা হয়।
এদিকে রামগতির মেঘনা নদী এলাকায় মাছ শিকারের দায়ে ৫ জেলেকে আটক করা হয়। পরে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুচিত্র রঞ্জন দাস ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের প্রত্যেকের ১ হাজার টাকা করে জরিমানার নির্দেশ দেন। তারা হলেন নোয়াখালীর চর জব্বর এলাকার আলী হোসেন, আবুল হোসেন, মো. আজাদ, মো. সফি উল্যা ও রামগতি উপজেলার চর কলাকোপা এলাকার তোফাজ্জল হোসেন। তাদের কাছ থেকে ১৫ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ১০ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়।
জেলা মৎস্য বিভাগ জানায়, প্রজনন মৌসুম উপলক্ষে মা ইলিশ রক্ষায় রামগতির আলেকজান্ডার থেকে চাঁদপুরের ষাটনল পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার মেঘনা নদী এলাকায় ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা চলছে। এসময় নদীতে সকল প্রজাতির মাছ ধরা নিষিদ্ধ। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নদীতে নামলে অভিযুক্তদের কারাদ- ও জরিমানাসহ উভয় দ-ে দ-িত করা হবে। এই আইন বাস্তবায়নে জেলা, উপজেলা প্রশাসন, মৎস্য বিভাগ ও কোস্টগার্ডের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
লক্ষ্মীপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এস এম মহিব উল্যাহ বলেন, সরকারি আইন বাস্তবায়নে মেঘনা নদীতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। মাছ শিকারের দায়ে ১৯ জনকে আটক করা হয়েছে। এরমধ্যে ১৪ জনের ১ মাস করে কারাদ- ও ৫ জনের ১ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।