দূর্গা পূজায় রাজীব মণি দাসের দুই নাটক

শারদীয় দূর্গা পূজা উপলক্ষে রাজীব মণি দাসের রচনায় নবমীর পূজায় এটিএন বাংলায় ৭ অক্টোবর রাত ১১টায় সম্প্রচার হবে বিশেষ নাটক ‘পরিণতি’। ৮ অক্টোবর রাত ১১টায় দশমীতে একুশে টেলিভিশনে সম্প্রচার হবে বিশেষ নাটক ‘মায়ের আশির্বাদ’। দু’টি নাটকই পরিচালনা করেছেন চন্দন চৌধুরী। আর প্রযোজনা করেছেন অরোরা এ্যাড মিডিয়া। নাটক দুইটির বিভিন্ন চরিত্রে দেখা যাবে- আহসানুল হক মিনু, আনিসুর রহমান মিলন, উর্মিলা শ্রাবন্তী কর, কাজী জারা, সঞ্জয় রাজ, মানসী প্রকৃতি- সহ আরো অনেকে।

‘মায়ের আশির্বাদ’ গল্পে দেখা যাবে- সময়ের বিবর্তনে একান্নবর্তী পরিবারের থেকে আমরা কতটা দূরে সরে এসেছি। অথচ, যৌথ পরিবারকেন্দ্রিক আপনজনদের সান্নিধ্যে থেকে আবেগ-অনুভূতি ছিল বাঙালি সংস্কৃতিরই অংশ। সনাতন ধর্মাবলির যৌথ পরিবারের একটি উদাহরণ ধীরেন দেবের পরিবার। এইরূপ যৌথ পরিবার আজকাল হিন্দু সমাজেও বিরল। দুই ছেলে আবির ও রাকেশ এবং একমাত্র মেয়ে তৃণাকে নিয়ে ধীরেন বাবুর সুখের সংসার। ধীরেনকে দেখে গাঁয়ের মানুষ হিংসা করে। কারণ, তার মতো করে কেউ পরিবারকে আঁকড়ে ধরে রাখতে পারেনি।

এদিকে অপর গল্প ‘পরিণতি’তে রয়েছে গাঁয়ের দুরন্ত মেয়ে রাখির দুরন্তপনা। তবে দেখতে যেন সাক্ষাত অন্নপূর্ণা। কারো বিপদ দেখলে এগিয়ে যায় সে। মাঝে মধ্যে ঘটে বিপত্তি। হিন্দু মেয়ে হয়ে এভাবে ঘুরে ফিরবে সেটা গ্রামের মানুষ ভালো চোখে দেখেনা। প্রতিমা অবশ্য রাখিকে সব সময় প্রশ্রয় দিয়ে বলে মেয়ের বিয়ে হয়ে গেলে এসব আর থাকবে না। প্রতিমার এই কথার সাথে দ্বিমত প্রকাশ করে রাজন। রাজন সব সময় চিন্তায় আছে কিভাবে বোনকে ভালো পাত্রের কাছে পাত্রস্থ করবে।