শিল্পীদের পাশে থাকবো ,কথা দিলাম -জয় চৌধুরী

২৫ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। মিশা এবং জায়েদ প্যানেলের গতকাল মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে প্রধান নির্বাচন কমিশন এর হস্তে।এছাড়াও জমা দিয়েছেন স্বতন্ত্র থেকে মৌসুমী ইলিয়াস কোবরা নানাশাহ থেকে শুরু করে কয়েকজন।

এদেরমধ্যে সবচেয়ে কনিষ্ঠ হাতে মনোনয়নপত্র জমা দেন চিত্রনায়ক জয় চৌধুরী মিশা -জায়েদ প্যানেলে। এবারই প্রথমবার তিনি নির্বাচন করছেন ,লড়বেন কার্যনির্বাহী পদে তিনি। ‘অন্তরজ্বালা’র এই কনিষ্ঠ অভিনেতা দারুন খুশি যে ,এমন কিছু তারকাদের সাথে তিনি নির্বাচন করবেন। দুই -একদিনের মধ্যেই প্রাথী পরিচিতি করা হবে।

‘হিটম্যান’ খ্যাত এই নায়ক শিল্পীদের কাছেও বেশ প্রিয় ,কারণ বটে তিনি ছুটেছেন হাসপাতাল থেকে শুরু করে প্রয়াত শিল্পীদের কবরস্তান পর্যন্ত।খুলে বলতে গেলে , একজন শিল্পী অসুস্থ তাকে যেকোনো সাহায্য থেকে শুরু করে তার সমস্ত খবর তিনি হরহামেশাই নিয়েছেন। তিনি থেকেছেন শিল্পী সমিতির সকল উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে, গেলো কয়েকবছরে তা চোখে পড়েনি এমন কোনো শিল্পী নেই !

চিত্রনায়ক জয় চৌধুরী’র সাথে কথা হলে তিনি বলেন ,আমি ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রতিষ্ঠান এবং কালচারাল থেকে শুরু করে সেবামূলক সংগঠনের সাথে সাংগঠনিকভাবে পরস্পর ছিলাম।

গত দুইবছর থেকে আমি কোনো প্যানেলে ছিলাম না তবে আমি তাদের সাথে অঙ্গানুকভাবে জড়িত ছিলাম।আমি দুই বছরে শিখেছি কিভাবে শিল্পীদের পাশে থাকা যায় ! তাদের সকলদিক সাহায্য এবং তাদের স্বার্থরক্ষা করা যায়। যারা সিনিয়র শিল্পী আছেন সোহেল রানা স্যার, ফারুক স্যার ,মিশা ভাই ,ডিপজল চাচ্চু,রুবেল ভাইয়া- এই গুণী মানুষগুলোই আমাকে সমর্থন দিয়েছেন এবং সাহস দিয়েছেন যে ‘তুমি যেহুতু নতুন এবং কাজ করার ইচ্ছে আছে .তাহলে আমাদের সাথেই থাকো ‘।

জয় আরো বলেন -ভালো কিছু করতে গেলে আসনের দরকার হয়না তবে কিছু কিছু স্থানে আসনটা আবার ভীষণভাবে লাগে কথা বলার জন্য ,শিল্পীদের অধিকার চাওয়ার জন্য।আমি আশাবাদী ,ভালো একটা প্যানেল তৈরী হয়েছে ,এবং এই লেজেন্ডের সাথে আমি সবচেয়ে ছোট একটা ছেলে ,আসলেই সবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ ,তারা আমাকে মনে করেছে যে ‘তাদের পাশে থেকে আমি একটু হলেও কিছু করতে পারবো।এটার জন্য আমি ঋণী, আমি আপ্রাণ চেষ্টা করবো শিল্পীদের পাশে থাকার …