লক্ষ্মীপুরে দর্জির দোকানঘর দখলের পাঁয়তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুরে সদর উপজেলার মান্দারীতে দোকানঘর উচ্ছেদ করে জোরপূর্বক জমি দখলে নিতে তোফাজ্জল হোসেন নামে এক দর্জিকে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মোক্তার আহম্মদকে প্রধান করে ৪ জনের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।

বাদীর আইনজীবী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আদালতের বিচারক মোহাম্মদ সফিউজ্জামান ভূঁইয়া মামলাটি আমলে নিয়েছেন। এ ঘটনায় আদালত দুইপক্ষের মধ্যে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার জন্য চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ দেওয়া হয়। সদর উপজেলা সহকারি কমিশনারকে (ভূমি) মামলাটি তদন্ত করে আগামী ২৪ অক্টোবরের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বলা হয়েছে।

এ মামলার অন্য আসামিরা হলেন মোক্তার আহাম্মদের ছেলে আছলাম মোরশেদ, বেল্লাল ও খোরশেদ। তারা উপজেলার মান্দারী ইউনিয়নের পশ্চিম মান্দারী গ্রামের বাসিন্দা।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মান্দারী ইউনিয়নের আমিন বাজারে মৃত সুজায়েত উল্যার কাছ থেকে ১৯৯২ সালে তোফাজ্জল দুই শতাংশ জমি ক্রয় করেন। এরপর ওই স্থানে দোকানঘর নির্মাণ করে তোফাজ্জল দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখল করে আসছেন। কিন্তু মোক্তার আহম্মদ ও তার ছেলেরা দোকানঘর উচ্ছেদ করে ওই জমি জোরপূর্বক দখল করার পাঁয়তারা করে আসছে। গত ১০ সেপ্টেম্বর সকালে আসামিরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তোফাজ্জলের ওপর হামলার চেষ্টা করে। এতে তোফাজ্জলের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে তারা চলে যায়। এসময় তোফাজ্জলকে একা পেলে হত্যা করে লাশ গুমের হুমকি দেয় আসামিরা।

অভিযোগ অস্বীকার করে মোক্তার আহাম্মদ বলেন, একই স্থানে আমিও এক শতাংশ জমি ক্রয় করেছি। তোফাজ্জল আমার জমির কিছু অংশ দখল করে রেখেছে। তবে কাউকে হুমকি দেওয়া হয়নি। জমি উদ্ধারের জন্য আমি থানায় অভিযোগ করেছি।

শীর্ষ সংবাদ/এফএইচ