লক্ষ্মীপুরে ব্যবসায়ী আলমগীর হত্যা মামলা : দুই আসামি কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক :
লক্ষ্মীপুরে রায়পুরে ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেন হত্যা মামলার দুই আসামি মেহেদী হাসান রুবেল ও সিএনজি চালক সাগরকে আদালতে হাজির করা হয়। সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী অঞ্চল সদর লক্ষ্মীপুর এর আদালতে হাজির করে জামিন আবেদন করেন আসামীরা। পরে বিচারক তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেলা কারাগারে প্রেরন করেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি জসিম উদ্দিন এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নিহত ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেনের ভাই ও মামলার বাদী হুমায়ুন কবির জানান, টাকা আত্মসাৎ করতে তার ভাইকে চলন্ত সিএনজিতে গলাকেটে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার দুই আসামীকে গ্রেপ্তার হলেও অপর হত্যাকারীকে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। হত্যাকারীকে গ্রেপ্তার ও দ্রুত বিচার আইনে মামলাটি নেয়ার জন্য সরকারের কাছে দাবী জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ২০ আগষ্ট বুধবার রাতে সদর উপজেলার উত্তর হামছাদী ইউনিয়নের কাজিরদিঘির পাড় এলাকায় চলন্ত সিএনজিতে জবাই করে হত্যার পর লাশ পুকুরে ফেলে দেয় হত্যাকারীরা। পরের দিন সকালে ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেনের গলাকাটা লাশ পুকুরে ভাসতে দেখে পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় নিহত আলমগীর হোসেনের ভাই হুমায়ুন কবির বাদী হয়ে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে মান্দারী ও বটতলী এলাকা থেকে মেহেদী হাসান রুবেল ও সাগরকে গ্রেপ্তার করে। নিহত আলমগীর হোসেন রায়পুর উপজেলার বামনী ইউনিয়নের শাইছা গ্রামের মৃত. বশির উল্যাহ’র ছেলে। সে রায়পুর পৌর শহরের শাহী হোটেল সংলগ্ন তানহা পেপার হাউজ এন্ড সুতাঘরের মালিক।