কিভাবে মেয়েরা প্রেমে পড়ে?

কিভাবে মেয়েরা প্রেমে পড়ে ? এটা একটা অনেক দামী প্রশ্ন। কারন সব ছেলেরাই জানতে চায়, কিভাবে মেয়েরা প্রেমে পড়ে! অনেক ক্ষেত্রে মেয়েরা নিজেরাও বলতে পারেন না কিভাবে তিনি প্রেমে পড়েছেন। এমনই ব্যাপার স্যাপার। প্রেম অনেক বেশি এলোমেলো আর গতানুগতিক নীয়মের বাইরে। প্রেমের ছন্দ আছে। প্রেম কিংবা প্রেমের কবিতা এত বেশি হতো না যদি সত্যিই মেয়েদের ভালবাসার ছন্দ বা ভালবাসার গল্প আগে থেকেই সেট করে নেয়া যেত। অনেক বেশি রহস্যে ঘেরা ভালবাসার গল্প কিংবা প্রেমের ছন্দ। আসুন দেখা যাক কিভাবে মেয়েরা প্রেমে পড়েন সে নিয়ে কিছু আলোচনা করা যাক।

মেয়েদের ভালবাসার ছন্দ শুরু হয় অনেক আগে থেকেই, মেয়েরা প্রেমে পড়ে

অধিকাংশ মেয়ে হয়ত আমার সাথে একমত হতে পারেন যে মেয়েরা প্রেম ব্যপারটি বুঝতে পারে অনেক আগে থেকেই। তার কিছু ন্যাচারাল কারনও আছে। তারপরেও আত্মীয়স্বজন কিংবা পাড়া প্রতিবেশীদের কাছ থেকে জানতে জানতে একসময় ঠিকই বুঝতে পারেন কী এই প্রেম? কেন প্রেমের চিঠি কিংবা প্রস্তাব আসে। বাস্তব সত্যি কথা হচ্ছে, মেয়েদের কাছে খুব অল্প বয়সেই প্রেমের চিঠি চলে আসে। প্রেমের কবিতা, রঙ মেখে ছেলেরা, বুড়োরা কিংবা পাড়ার অনেক মানুষ যখন নানা ইংগিতে প্রেমের কথা বলে, তখন আর বুঝতে বাকী থাকে না কী এই প্রেম। কেন করতে হয়। অবাক করা বিষয় হচ্ছে, সারা বিশ্বে মেয়েরা মাত্র ১০ থেকে ১৫ বছরের মধ্যেই প্রেম বা এ জাতীয় প্রস্তাব পান। কখনো জোর প্রস্তাবও আসে।

তাই মেয়েরা প্রেম বুঝে ফেলেন অনেক আগেই। কিছু কিছু অতি আগ্রহী হয়ে নিজেই নিজের প্রেমিকা খুঁজতে শুরু করেন। এই ছোট বেলাতে প্রায় অনেক মেয়েরা প্রেমে পড়ে। এসব প্রেমের ফল বেশি ভাল হয় না। পূর্নতা পায় না।

কলেজের শুরু বা হাইস্কুল এর শেষের দিকে প্রেম

কলেজে যাওয়ার শুরুতেই মেয়েদের একটা নতুন পরিবেশ গায়ে লাগে। সাথে লাগে নতুন কিছু চোখের চাউনি। এখানে হাজারো ছেলে বুড়োর চোখ গিয়ে পড়ে নতুন আসা মুখ গুলোর দিকে। অনায়াসে কাবু হয়ে যেতে হয় নানান রকম ভালবাসার রোমান্টিক এসএমএস এর কবলে পড়ে। খেতে না পারা, বিস্রাম নিতে না পারা আর রাস্তায় নানান ধরনের অত্যাচার তো আছেই। অনেক মেয়ে প্রতিবাদী হয়ে ওঠে। অনেকেই মেনে নেয়। অনেকেই খুঁজে পায় নিজের মনের মত সংগী। এই সময়টা এত বেশি খারাপ যে নিজের একজন কাছের মানুষ সবারই দরকার হয়। মেয়েদের মন আরো বেশি আবেগ প্রবন। তাই নতুন ভংগীতে যে সুন্দর উপস্থাপন করে তার সাথেই প্রেম হয়ে যেতে পারে। ভালবাসার গল্প অনেক আছে এমন। প্রেমের চিঠি আসতো অনেক আগে। এখন সেটা প্রেমের কবিতা হয়ে দেয়ালে ছাপা হয়। চিরকুটে লিখে ছুঁড়ে মারা হয় না আগের মত। মোবাইলে এসএমএস হয়ে চলে আসে। ভালবাসার রোমান্টিক এসএমএস।

প্রেম শুরু হয় কিভাবে?

হাসতে হাসতেই প্রেম শুরু হয়। শুরু হওয়া প্রেম আবার থেমেও যায়। তবে প্রেমের শুরুটা যেভাবেই হোক টিকে থাকার জন্য মেয়েদের অনেক চেষ্টা থাকে। ছেলেদের প্রেম হয় দ্বায়িত্বহীন স্বভাবের। ভাল লাগল তারপর প্রেমের অফার, কিছুদিন প্রেম হলো। ব্যাস, তার আর ভাল লাগে না। এভাবেই নানা সমস্যা জালে মেয়েদের আবেগ আবার কখনো মেয়েরা ছেলেদের আবেগ নিয়ে ছিনিমিনি খেলে। এ খেলা প্রেমের শুরু থেকেই হতে পারে।

সাধারন নীয়মে, একটা ছেলে একটা মেয়ের পেছনে প্রায় প্রতিদিনই কিছু সময় ব্যয় করে শেষে হয়ত মাসের মধ্যে নতুবা বছর শেষে তার মন জয় করে। প্রেম শুরু করে।

আবার এর বাইরের নীয়মে, নানা কারনে প্রথম এক দুই প্রস্তাবেও প্রেম হয়ে যায়। প্রেম শুরু হওয়া এতটাই সিম্পল বা সাধারন।

জরুরী প্রেম প্রস্তাব যারা করেন তারাই আবার জরুরী ব্রেকআপ শুরু করেন। তাই প্রেম কোনভাবেই জরুরী কিছু হতে পারে না।