খাটো মেয়ে পছন্দ কেন?

কম বেশি সকলেই বাহ্যিক সৌন্দর্যের উপর ভিত্তি করেই ভালো লাগা প্রকাশ করি। যে যতো সুন্দর দেখতে আমরা তার প্রতি বেশি আকৃষ্ট হই। প্রেমিকা কিংবা বউ সব ক্ষেত্রেই ছেলেরা তুলনামূলক ভাবে একটু লম্বা মেয়ে খোঁজেন। অনেকেই মেয়ে খাটো বলে নাক ছিটকায়! শাশুড়ির সখের ছেলের বউ লম্বা না হলে হয়? কিন্তু না খাটো মেয়েরা অনেক ক্ষেত্রেই লম্বা মেয়েদের তুলনায় বেশি ভালো। প্রেমিকা বা বউ হিসেবে খাটো মেয়েদের রয়েছে নানা সুবিধা যেগুলো বাইরে থেকে আপনার চোখে নাও পড়তে পারে। যেমন-

১. বয়সে কম

মেয়েরা সাধারণত পুরুষদের তুলনায় একটু তাড়াতাড়ি মুটিয়ে যায়। মাঝে মাঝে বয়সের তুলনায় দেখতে বড় লাগে। খাটো মেয়েরা এদিক দিয়ে একটু ভিন্ন। খাটো মেয়েদের বয়স বাড়লেও লম্বা মেয়েদের তুলনায় দেখতে কম বয়সী লাগে। তাই নিজের পাশে ‘এভার গ্রিন লেডি’ রাখতে পছন্দ করতে পারেন খাটো মেয়ে।

২. চটপটে

বেশিরভাগ খাটো মেয়েরাই চটপটে হয়। আলসেমী বা ঝিম মেরে বসে না থেকে খাটো মেয়েরা ঝটপট যেকোনো কাজ করে ফেলতে পারে।

৩. সম্পর্ক ধরে রাখে

খাটো মেয়েরা সম্পর্ক ধরে রাখতে জানে। উপর থেকে যাই হোক, খাটো মেয়েরা ভিতর থেকে তার কম উচ্চতাকে দূর্বলতা মনে করে থাকে। এই দূর্বল দিক থাকা সত্যেও সঙ্গী তাকে ভালোবাসে এটাই তার কাছে অনেক কিছু। তাই খাটো মেয়েরা সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে অনেক কিছু করতে পারে।

৪. রাগলে চমৎকার লাগে

খাটো মেয়েরা রাগলে আরো আকর্ষণীয় লাগে। মনে হবে বার বার রাগিয়ে সেই রাগ ভাঙাতে। খাটো মেয়েদের রাগ যেন ছোট পটাকা, বড় ধামাকা।

৫. বিব্রতবোধ না হওয়া

খুব সাধ করে নিজের মতোই লম্বা বউ বিয়ে করলেন। কোথাও বেড়াতে গেলে বউ তার প্রিয় হিলটাই পড়ল। ভাবুন তো বউকে আপনার চেয়ে লম্বা দেখালে কি বিব্রতকর অবস্থায় না পড়তে হতে পারে।

৬. খাটো মেয়েদের উঁচু হিল

খাটো মেয়েরা সাধারণত কম উচ্চতা ঢাকার জন্য উঁচু হিল পড়ে। বিভিন্ন ধরনের হিলে আপনার প্রেমিকাকে দেখতে লাগবে আরো স্টাইলিশ ও আকর্ষণীয়।

বাহিরের সৌন্দর্য্য কখনো মানুষের ভিতরের অবস্থা ব্যাখ্যা করতে পারে না। অনেকেই খাটো মানেই দূর্বলতা মনে করেন তা কিন্তু মোটেই নয়। তবে এই কথা বলার উদ্দেশ্য লম্বা মেয়েদের ছোট করা নয়। আমরা প্রত্যেকেই যে যার জায়গায় সুন্দর।