ইচ্ছের বিরুদ্ধে বিয়ে

আজ নিজের ইচ্ছের বিরুদ্ধেই আমার বিয়ে হলো। তাও দশম শ্রেণীতে পড়া একটা পিচ্চি মেয়ের সাথে। মায়ের জোর করাতেই বিয়েটা করতে বাধ্য হই।আর মায়েদের অস্ত্র তো জানেন ই। যদি বিয়ে না করি তাহলে মরা মুখ দেখব।তাই ইচ্ছের বিরুদ্ধেই বিয়েটা হয়। যাই হোক পরিচয় টা দেই…. আমি হাবিবুর রহমান হাবিব। অনার্স সেকেন্ড ইয়ারের ছাত্র। বাবা মা এর একমাত্র সন্তান।পরিচয় দিতে দিতে মা এলো। কিরে এখনো এখানে কেনো রুমে যা হুম যাচ্ছি। যাচ্ছি মানে? এখনি যা। আরে যাচ্ছি তো। তারপর রুমে এলাম।এসে দরজা লাগিয়ে বিছানার কাছে যেতেই বউ নিচে এসে আমাকে সালাম করে আবার বিছানায় গেলো।ও বউয়ের পরিচয় ই তো দেওয়া হলো না। ওর নাম তানিয়া আক্তার তামান্না।আমার মা এর বান্ধবী এর মেয়ে।তাই তো জোর করে বিয়েটা দিলো। যাক বর্তমানে ফিরি। তারপর সে বিছানায় বসল।আমি বললাম…. যাও ফ্রেশ হয়ে এসে শুয়ে পড়। মানে।শুয়ে পরব কেন? তো কি জেগে থাকবে? আজ না আমাদের বাসর রাত? হুম তো। তো কি বাসর রাতে মানুষ ঘুমায়? তো কি করে?

ধুর যান আপনি একটা ফাযিল। জানেন না মনে হয়। বাপরে কি মেয়ে।প্রথম দিনই বরকে ফাজিল বলে না জানি আবার কি করে। কি হলো চুপ করে গেলেন যে। কি জানি আমি? যে বাসর রাতে স্বামী স্ত্রী কি করে। জানি কিন্তু তুমি এখনো এসবের জন্য প্রস্তুত নও।তাই আমাদের মাঝে এখন এসব হচ্ছে না।এখন ফ্রেশ হয়ে এসে ঘুমিয়ে পড়। তারপর তানিয়া বাথরুম এ গিয়ে ফ্রেশ হয়ে এলো।আমি শুয়ে পরেছিলাম।ও আমার পাশে এসে শুয়ে পড়ল।তারপর ও আমার বুকে মাথা রাখল। একি কি করছ এসব। কি করলাম? দেখো আমি এ বিয়েটা জোর করে করেছি।তাই এসবের জন্য আমারও কিছুটা টাইম লাগবে।বিয়েটা যেহেতু হয়েছে তোমাকে মেনে নিতেই হবে। কিন্তু আমার টাইম লাগবে এসব মেনে নিতে।ততদিন দুরত্ব বজায় রাখবে বুঝলে। না।তোমার মেনে নিতে টাইম লাগবে আমার কি? আমি মেনে নিয়েছি আর আমার কোনো টাইম লাগবে না।

বলেই মেয়েটা সোজা লিপ কিস করে দিলো। আমি মেয়েটার সাহস দেখে খালি অবাক হচ্ছি।মেয়েটা মনে হয় বয়সের চেয়ে বেশি পেকে গেছে।আমি ওকে সরিয়ে দিয়ে বললাম। এসব কি করছ।চুপ করে ঘুমাও তো। ডিস্টার্ব কিরবে না।নাহলে রুম থেকে চলে যাবো। যাও না যাও আমিও চিৎকার করব। করলেও কিছু হবে না। কেনো? আজ আমাদের বাসর রাত তাই সবাই অন্য কিছু ভেবে নিবে।আর এসব ভেবে নিলেই কাল থেকে তোনার উপর সবাই হাসাহাসি করবে। ধুর আপনি খুব চালাক ভাবেন নিজেকে তাই না?এখন আমি আপনাকে জড়িয়ে ধরে ঘুমাবো।আর আপনি যদি আমাকে কিছু বলছেন তাহলে আমি সোজা আম্মু আর আব্বুর কাছে গিয়ে নালিশ করব আর আমি জানি যে আপনি আব্বুকে খুব ভয় পান। এই রে মেয়েটা দেখি আমার দুর্বল পয়েন্ট ও জানে। হুম। এখন চুপ করে ঘুমান। তারপর ও আমার বুকে মাথা রেখে শুয়ে পরল।আমিও কিসব ভাবতে ভাবতে কখন যে ঘুমিয়ে পরলাম নিজেও জানি না।সকালে আমি ওর আগে উঠে পরলাম।উঠে বাথরুম থেকে ফ্রেশ হয়ে এসে দেখি ও এখনো ঘুমাচ্ছে।তখন ওর মুখটা প্রথম বার খেয়াল করলাম।খুব মায়াবী লাগছিলো ঘুমের সময় মুখটা।চোখের সামনে কয়েকটা চুল সেই সৌন্দর্য টা নস্ট করে দিচ্ছিলো।তাই সামনে গিয়ে চুল সরিয়ে দিলাম।ঠিক তখনই সে উঠে গেলো।ব্যাপারটার জন্য আমি একেবারে অপ্রস্তুত ছিলাম।ও উঠেই একটা হাসি দিলো।

গুড মর্নিং। গুড মর্নিং। কখন উঠলে। এইতো একটু আগে। ডাক দিলে না কেনো। ভাবলাম ঘুমটা নষ্ট হয়ে যাবে তাই। ও আচ্ছা। হুম ফ্রেশ হয়ে আসো।নিচে যেতে হবে। কেনো? কেনো মানে খাবে না।আর আজকে সবাই বউ দেখতে আসবে তো। ও আচ্ছা আসছি।একটু অপেক্ষা কর। আচ্ছা যাও আমি ততক্ষন ল্যাপটপ টা চালাই। ল্যাপটপ টা টেবিলে ছিলো।তাই টেবিলে গিয়ে বসলাম।কিছুক্ষন পর হঠাৎ করে পিছন থেকে এসে আমাকে জড়িয়ে ধরল। একি করছ কি? কি করছি আমার বরকে জড়িয়ে ধরেছি।আর কিছুনা তো। কেউ এসে পরবে এখন। কেউ আসবে না। নিচে চলো। একটা কিস করো না। না আমি পারব না। পারবে না? না। পারবে না তো। না বললাম তো দেখো আজকে কি শুনবে খালি। কি শুনবো? সবার সাথে খারাপ ব্যাবহার করব। কর আমার কি আমার আরো লাভ মা কে কিছুক্ষন বলতে পারবো যে জোর করে বিয়ে করানোর ফল। আচ্ছা তুমি এতো নেগেটিভ কেন?জানিনা হয়তো জন্মগ…… বলতে না দিয়েই জোর করে কিস করে দৌড়ে যায়।

আমিও পিছু পিছু যাই।নাহলে আবার কে কি ভাববে। তারপর নিচে গেলাম সবাই মিলে একসাথে খাওয়াদাওয়া করলাম।আজকে সবাই তানিয়া কেই একটু বেশি কেয়ার করছে কিরে তোর মন খারাপ?(মা) না মন খারাপ হবে কেনো।শুধু ভাবছি হাবিব নামের একটা ছেলে ও আছে তোমাদের তা তো তোমরা ভুলেই গেছো। আরে আজ চুপ থাক। বিয়ে করেও ফাজলামো কমলো না। এখন দিগুন সহ্য করতে হবে। কেনো? তোমাদের বউটা আমার থেকে আরো বড় ফাজিল। এজন্যি তো ওকে এনেছি। তোকে শায়েস্তা করতে। তা আর পারবে না। আমি না চাইলে আমার সাথে কেউ পারে না। পারবে। বাজি হয়ে যাক। বাজি পরে তানিয়ে কাদলে কিন্তু আমার দোষ না। আর যেদিন আমি ওকে কাদতে দেখবো ওদিন ও হেরে যাবে। আচ্ছা(তানিয়া) ওকে। তারপর খাওয়াদাওয়া শেষ করে তানিয়াকেবললাম যে রেডি হয়ে নেও কেনো? স্কুল যাবে। আজকে? হুম।সামনে এস.এস.সি। তো? ফেল করলে এ বাড়িতে জায়গা থাকলেও আমার মনে আর জায়গা করে নিতে পারবে না। ।। আচ্ছা চলো।

এই বিভাগের আরো সংবাদ