রাগি মেয়ের ভালোবাসা

রাগি মেয়েরা এমনিতেই ভয়ংকর হয়,,, তার উপর আবার রাগটা যদি চুড়ান্ত সীমায় গিয়ে পৌছে তাহলে তো আর কোনো কথাই নাই… .
 –এক্ষুণি ব্লক দিবা আমাকে… (তিথী)
 –হায়হায়! কেনো..! (কাব্য)
 –কোন কেনো কুনু নাই, যা বলসি তুমি তাই করবা…!!
 –পারবো না… 
–না পারতেই হবে…
 –তুমি দাও… সিন হলো লাস্ট ম্যাসেজটা,, কিন্তু কোনো রিপ্লাই নাই…!!! কিছুক্ষণ পর কাব্যের ফোন বেজে উঠতেই না দেখেও কাব্য বুঝতে পারলো কার কল… ওপাশ থেকে ফোঁপাচ্ছে মেয়েটা…!!!

 –আমি আর নিতে পারছিনা,,, প্লিজ ব্লক মেরে দাও আমাকে… আর কল দিবানা, কিচ্ছু করবানা…!!! 
–আমার অপরাধটা তো বলবা..!!
 –আমি কল না দিলে তুমি কল দাও না,,, আমি নক না দিলে তুমি নক দাও না,,, জোর করে এই সম্পর্ক আমি টেনে নিতে পারবোনা আর…!! 

কথাটা শুনে কাব্য ভিতরে ভিতরে হাসে… কি পাগলি এই মেয়েটা…
 –দেখো তিথী, তুমি এইজন্যই ব্রেক-আপ করতে চাও?? এইজন্যই বলছো ব্লক দিতে?? তোমাকে তো বলেছি আমি এই কয়দিন খুব ব্যাস্ত…!!
 –দেখ আমি বুঝি,ওকে?? তোমার মেয়েদের অভাব হয় না… সেদিন রাতের বেলা কল দিলাম কেটে দিলা,, দেন দেখি বিজি,,, বন্ধুদের সাথে দেখা করতে যাবা বলে সেদিন দেখাও করতে আসলা না…!!! 
–তিথী আমি প্রতিটা ব্যাপার এক্সপ্লেইন করছিলাম তোমাকে…!! 
–লাগবে না তোমার এক্সপ্লেইনেশন… কুত্তা, শয়তানের শয়তান,, ছাগল,, তুই একটা ইইইইইই… ফেসবুকে ঢুকে যেন দেখি তুই নাই…!! টুং,,, টুং,, টুং,, 

ফোনটা কেটে দিলো মেয়েটা… কাব্যের মেজাজটাও খারাপ হলো চরম,, অলটাইম খুব অনেস্ট থাকে কাব্য তার সাথে,,, তাও এরকম কেউমেউ…!! ফেসবুকে ঢুকেই তিথীকে ব্লক মেরে দিলো… এই নিয়ে কতবার হলো? হিসেব নেই… যাকে বেশি ভালোবাসা হয় তাকে ততো বেশি ব্লক দেয়া হয়… ব্লক লিস্টে বিরক্তিকর মানুষরা শুধু থাকেনা,, মাঝে মাঝে সবচেয়ে প্রিয় মানুষটার নাম ও ব্লক লিস্টে থাকে… থাকতে হয়…রাখতে হয়… এটা ফেসবুকের একটা অকাট্য সত্য…! .. পরদিন সকালে ঘুম ভেংগে উঠেই বুকটা ফাঁকা ফাঁকা লাগতে শুরু করলো কাব্যের… কি যেনো নেই,, কিছু একটা নেই… দ্রুত অন্য আইডি দিয়ে তিথীর ওয়ালে গেলো কাব্য,, আজব… সে নেই..!! কাব্য ব্লক দেয়ার পর বেচারী নিজেও আইডি অফ করে দিয়েছে…! কাব্য মনে মনে বলে- “না,, মেয়েটা সত্যি অনেক ভালোবাসে আমাকে”!! তারপর পেরিয়ে গেছে বেশ কিছুদিন… ইগো দুইজনেরই ভয়ানক… নো কলিং,নো কথা বার্তা… কাব্য তিথীকে আনব্লক করেছে কিন্তু নক দেয়নি… হঠাৎ একদিন একটা পেজে কাব্যের একটা গল্পে তিথীকে কমেন্ট করতে দেখলো কাব্য। কিছুক্ষণ পরই তিথীর নক…!!!

 –আনব্লক করছো বলোনি ক্যান??
 –তুমি তো ডিএক্টিভইই ছিলা…!! 
–ধুরু,,আমি শুধু শুধু এতদিন কষ্ট করে অন্যআইডি দিয়ে তোমার লিখা পড়লাম…ধ্যাত্তেরী…!! 
–হুম,আমি জানি তুমি পড়… টের পাই,,, অনুভব করি…!!! 
–কচু করো,, আমড়া করো,, কচু খাও…!!
 –আচ্ছা খাবো…এখন একটু কল দেই??..
 –না,,, তুই জাহান্নামে গিয়া মরো… 

–আচ্ছা…!! কিছুক্ষন পরেই ফোনের পর্দায় সেই পরিচিত নাম্বার আর সেই অসম্ভব সুন্দর চোখদুটোর ছবি… কাব্য চোখের দিকে তাকিয়ে মনে মনে বললো “”জাস্ট একটা মানুষ কিভাবে এত্তগুলা ভালোলাগা দিতে পারে?? এই রহস্যের জবাব নিশ্চয় কোন বিজ্ঞান দিতে পারবে না””!! উহহু,,, ফেসবুকটা আসলেই সুন্দর… পৃথিবীটা আরো সুন্দর… তারথেকেও বেশি সুন্দর প্রিয় মানুষটার হাতটা ধরে এই পৃথিবীতে জীবনটা কাটানো…

এই বিভাগের আরো সংবাদ