রোমান্টিক গল্প কাহিনি ছেলে মেয়ে

সবসময় দ্রুত রিপ্লাই দেওয়াছেলেটা আজকাল কেনোজানি এক দুই মিনিট পররিপ্লাই দেয়! মেয়েটারদেরিতে রিপ্লাই পাওয়া সহ্যহয়না । ছেলেটা কে দেরিতেরিপ্লাই দেওয়ার কারণজিজ্ঞেস করলে ছেলেটারিপ্লাই দেয় “নেটস্লো”কিংবা “পাশে কেউ আছে”কিংবা “ডাটা অন রেখে অন্যকাজে ব্যস্ত ছিলাম!”মেয়েটা ‘ভালোবেসে’ সেটাবিশ্বাস করে । ‘দুপুরে কি খেয়েছে? কতোটাখেয়েছে? পেট ভরেছেকিনা?’ খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে সবজিজ্ঞেস করা ছেলেটাআজকাল শুধু জিজ্ঞেস করে”খেয়েছো?” জবাবে মেয়েটা’না’ বললে ছেলেটা বলে”খেয়ে নিও ।”- সবসময় ‘মন খারাপের’ব্যাপার টা বুঝে ফেলাছেলেটাকে আজকাল মেয়েটাস্মাইলি পাঠালে ছেলেটারিপ্লাই দেয় “কি হয়েছে?স্মাইলি ভাল্লাগেনা ।’আগে যে ছেলে ‘কি হলো?প্লিজ বলো ।

টেনশন হচ্ছে ।প্লিজ বলোনা” বলতে বলতেপাগল হয়ে যেতে সে ছেলেরআজ স্মাইলির বোঝার ক্ষমতানেই??! ‘আমাকে প্রতি সকালে কলদিয়ে ঘুম থেকে উঠাবে’ বলাছেলেটা কে মেয়েটা এখনোপ্রতিসকালে কল দেয় । সাতআটবার রিং বাজার পরছেলেটা ফোন রিসিভড করেবিরক্ত হয়ে বলে “আমাকেঘুমাতে দিবেনা নাকি?”মেয়েটা কান্না লুকানো গলায়নিচু স্বরে প্রশ্ন করে “আজকালকি অ্যালার্মেই ঘুম ভেঙেযায় তোমার??”মেয়েটা এখন সারাদিনছেলেটাকে একটাই প্রশ্ন করে,”কিহয়েছে তোমার? আমাকেএড়িয়ে যাচ্ছো কেনো? প্লিজবলোনা । তুমি চেঞ্জ হয়েগেছো ।”ওপাশ থেকে রিপ্লাই আসে”আমার কিছু হয়নি ।”ভালোবাসাবাসির সম্পর্কেযে ‘অবহেলার’ স্বীকার হয়তার মতো দুঃখী আর কেউ না। সব সহ্য করা গেলে প্রিয়মানুষটার অবহেলা সহ্য করাযায় না । তখন চিত্কার করে
কাঁদতে চাইলেও কাঁদা যায় না। বারবার মনে হয় এরচেয়েমরে যাওয়া টাই তো বেটার ।তখন ইচ্ছে হয় প্রিয় মানুষটারসামনে গিয়ে বলতে ইচ্ছে হয়”তোমার ইচ্ছে হলে আমাকেমেরে ফেলো । তবুও এভাবেঅবহেলা করোনা । আমিপারছি না । প্লিজ!”

এই বিভাগের আরো সংবাদ