মেয়েদের ১৪ টি কাজ যা দেখে বুঝতে পারবেন যে মেয়েটি আপনাকে ঠকাচ্ছে :৭নাম্বার কাজটি মারাত্মক…

একটা সম্পর্ক গড়ে ওঠে দুজন মানুষের ওপর ভর করে। যে সম্পর্কে বিশ্বাস যত মজবুত সেই সম্পর্কের ভিত তত মজবুত। কেউ ঠকতে পচ্ছন্দ করে না। ছেলেদের ক্ষেত্রে তাদের ইগোতে লাগে।

যখন ছেলেরা দেখে যে তাদের বান্ধবী অন্য কারুর খুব কাছাকাছি চলে যাচ্ছে তখন তারা উদ্বেগে পড়ে যায়। তারা কখনই চায় না যে, কোন ভালবাসার সম্পর্ক গড়ে উঠুক তার ভালবাসার মানুষের সাথে তার কোন বিশেষ ‘বন্ধুর’।

তাই তাদের পক্ষে খুব জরুরি হয়ে ওঠে এটা দেখা যে তাদের সম্পর্ক কে ঠকাচ্ছে আর তাকে প্রকৃত কে ভালবাসে। আমরা এখানে এরকম কিছু উদাহরণ তুলে ধরছি যেগুলি পরীক্ষা করে বোঝা যেতে পারে আপনার সম্পর্ক কতটা মজবুত।

১. সবসময় দোষারোপ করা।

যদি সে আপনার ছোটকাটো ভূল ভ্রাতি তেও আপনাকে দোষারোপ করতে থাকে তাহলে আমার মনে হয় আপনার একবার গভীরভাবে ভেবে দেখা দরকার আছে। আপনার সম্পর্ক সম্ভবত শেষ পরিণতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

২. কাউকে ‘শুধুমাত্র বন্ধু’ বলে ট্যাগ করা।

তার জীবনের নতুন মানুষটিকে নিয়ে প্রশ্ন করার সময় তার মুখের অভিব্যাক্তির দিকে লক্ষ্য করতে ভুলবেন না। যদি দেখেন যে তার মুখে কোন প্রকার অস্বস্তি আছে বা আপনার মুখের দিকে তাকাচ্ছে না তাহলে বুঝবেন কিছু গোলমাল আছে।

৩. রোজকার রুটিন নিয়ে প্রশ্ন করা।

আপানার প্রেমিকা যদি আপনার নিত্যকর্ম নিয়ে বারবার প্রশ্ন করে তাহলে খুব সম্ভাবনা আছে যে আপনাকে লুকিয়ে কোথাও যাবার প্ল্যান করছে বা কাউকে লুকিয়ে বাড়িতে নিয়ে আসার প্ল্যান করছে।

৪. যখন সে হঠাত করে খুব ব্যস্ত হয়ে পড়ে।

আগে প্রত্যেক শনিবার রবিবার আপনারা একসাথে অনেক সময় কাটাতেন, কিন্তু এখন সে আর আপনাকে খুব বেশি সময় দেয় না এবং অন্য জায়গাতেই বেশি ব্যস্ত থাকে।

যদি লক্ষ্য করেন যে তার অগ্রাধিকার এখন কাজ ও পরিবার ছেড়ে অন্য কোন জায়গায় সরে যাচ্ছে তাহলে বুঝবেন যে আপনার সম্পর্কে বিপদ তৈরি হচ্ছে।

৫. যখন সে সবসময় অন্যমনস্ক থাকতে শুরু করে।

যখন আপনি তার সাথে কোন ব্যাপারে অলোচনা করার চেষ্টা করেন কিন্তু লক্ষ্য করেন যে সে অন্যমনস্ক হয়ে আছে, যেন অন্য কোন জগতে হারিয়ে গেছে। এটা একটা সংকেত হতে পারে যে সে আপনাদের সম্পর্কটি ভেঙে দেওয়ার চিন্তাভাবনা করছে।

৬. নিজের মনে হাসছে।

একটা সময় ছিল যখন সে আপনার ব্যাপারে চিন্তা করলেই লজ্জা পেত এবং হেসে ফেলতো। কিন্তু সে এখন আপনার সামনেও অন্য কারুর কথা চিন্তা করে। আপনি এরকম কিছু লক্ষণ দেখলে সতর্ক হয়ে যাবেন, এর মানে হতে পারে যে তার জীবনে ‘অন্য কারুর’ আগমন ঘটেছে।

৭. সঠিকভাবে কোন প্রশ্নের উত্তর দেয়না।

যখন আপনি তাকে সম্পর্ক ঠকানোর ব্যাপারে কোন প্রশ্ন করছেন তখন সে কোন প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে চুপ করে থাকছে, তখন এই সম্পর্ক নিয়ে আপনার ভাল করে ভাবা উচিৎ। সে আপনাকে যেকোন সময় সম্পর্ক ভেঙে দেওয়ার কথা বলতে পারে।

৮. সবসময় বিরোধীতা করা।

ছোটখাটো মনোমালিন্য সব সম্পর্কেই হয়ে থাকে। কিন্তু সে যদি ছোটখাটো ব্যাপার নিয়ে রেগে থাকে তাহলে সম্ভবত এই রাগের অজুহাতে সে আপনার থেকে কিছু লোকাচ্ছে।

৯. আপনার থেকে মোবাইল লুকিয়া রাখা।

সে আপনার থেকে মোবাইল ফোন লুকিয়ে রাখছে। এরকম তখনই হয় যখন সে চায়না যে আপনি তার রোম্যান্টিক মেসেজগুলি দেখে ফেলেন।

১০. আপনার সামনে আর ফোনে কথা বলছে না।

সে আপনার সামনে তাড়াহুড়ো করে মোবাইল কেটে দিচ্ছে। সে আপনার সামনে ফোনে কথা বলতে অসুবিধা বোধ করছে। এরকম হলে আপনি নিজের চোখ খুলে রাখুন।

১১. আপনার সাথে রোম্যান্স করতে আর খুব একটা আগ্রহী নয়।

যখন সে আপনাকে আদর করে জড়িয়া ধরা বন্ধ করে দেয় বা কাছাকাছি আসা বন্ধ করে দেয়, তার মানে খুব সম্ভবত আপনি ঠকছেন। সে আর আপনাকে আর আগের মত ভালবাসে না।

১২. দূরত্ব এবং গণ্ডী

শুধুমাত্র বিছানায় নয়, এই দূরত্ব আপনি দৈনন্দিন জীবনের সবকিছুতেই লক্ষ্য করবেন। দূরে দূরে বসা, ফোন কেটে দেওয়া এরকম লক্ষণ দেখলে আপনি বুঝবেন আপনাদের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হচ্ছে।

১৩. ঘনঘন নতুন জামাকাপড় কেনা।

মেয়েরা শপিং করতে খুব ভালবাসে, এ বিশষে কোন সন্দেহ নেই। কিন্তু যদি আপনি লক্ষ্য করেন যে তার সব পুরানো জামাকাপড় বদলে নতুন জামাকাপড়ের কালেকশান করছে, তাহলে সতর্ক হন। সে সম্ভবত নিজের চারিপাশের সব কিছু পাল্টাতে চাইছে, এমনকি আপনাকেও।

১৪. ইদানিং খুব সেক্সি হয়ে গেছে।

মেয়েরা নতুন নতুন অন্তর্বাস কিনতে খুব ভালবাসে, তাদের রতিক্রিয়াকে আরও কামুক করে তোলার জন্য। কিন্তু আপনি যদি লক্ষ্য করেন যে সে এরকম অনেক নতুন নতুন অন্তর্বাস কিনছে কিন্তু আপনার সামনে সেগুলিকে বেডরুমে পড়ে আসছে না, তার মানে এরকম সম্ভাবনা আছে যে সে অন্য কারুর জন্য ওগুলো কে ব্যবহার করছে।