খোলামেলা হয়ে ফটোশুট করে বিতর্কে প্রিয়াঙ্কা!

ম্যাগাজিনের কভারে পিঠখোলা রেখে শাড়ি পরায় বিতর্কে জড়িয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ব্লাউজ না থাকায় নেটিজেনরা কটাক্ষ করেছিলেন তাঁকে। এবার সেই সব নেটিজেনদেরই একহাত নিলেন ফ্যাশন ডিজাইনার তরুণ তাহিলিয়ানি।
দিনকয়েক আগে দেশি গার্ল একটি ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদের শুটের জন্য শাড়ি পরেন। ফটোশুটের জন্য তাঁকে ব্লাউজ ছাড়াই শাড়ি পরতে হয়েছিল। নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে সেই ছবিই পোস্ট করেন প্রিয়াঙ্কা। আর তাঁর এইভাবে শাড়ি পরা নিয়ে নেটদুনিয়ায় শুরু হয় বিতর্ক। খবর সংবাদ প্রতিদিনের।
প্রচলিত ভারতীয় প্রথায় ব্লাউজের সঙ্গে শাড়ি না পরায় নেটিজেনদের রোষের মুখে পড়তে হয় প্রিয়াঙ্কাকে। দেশের সংস্কৃতিকে তিনি অপমান করেছেন বলেও অভিযোগ ওঠে। এই নিয়েই মুখ খোলেন ডিজাইনার তরুণ তাহিলিয়ানি।
একটি সংবাদমাধ্যমকে তরুণ জানিয়েছেন, প্রিয়াঙ্কা যেভাবে শাড়ি পরেছেন, তা অশালীন নয়। ‘চোলি’ ব্যবহার না করা ‘গ্লোবাল স্টেটমেন্ট’। প্রিয়াঙ্কাকে আধুনিক ভারতের আইকন বলেছেন তরুণ। প্রিয়াঙ্কা নিজেও এইভাবে শাড়ি পরার মধ্যে অশালীন কিছু খুঁজে পান না।

অভিনেত্রীর মতে, যখন ভারতের ফ্যাশন নিয়ে কথা হয়, তখনই উজ্জ্বল, সব ঢাকাঢুকি দেওয়া জামাকাপড়ের কথা আসে। এই ধরনের শাড়ি সাধারণত কেউ দৈনন্দিন কাজের সময় পরে না। তাঁর মা ফরাসী শিফন শাড়ি পরতেন। মাথায় পরতেন একটা ছোট্ট টিপ। এটাই তাঁর কাছে আধুনিক ফ্যাশন স্টেটমেন্ট। তিনি সেটাই দেখাতে চেয়েছেন।
প্রসঙ্গত, ব্লাউজ ছাড়া ওই সাহসী ফটোশুট করা হয়েছিল এক বিখ্যাত মার্কিন ফ্যাশন ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদের জন্য। ফ্যাশন ম্যাগাজিন ‘ইনস্টাইল’-এর জুলাই সংখ্যার ‘প্রচ্ছদ কন্যা’ হিসাবে সাহসী অবতারে দেখা গিয়েছে প্রিয়াঙ্কাকে। ব্লাউজ ছাড়াই এই নতুন ভঙ্গিতে শাড়ি পরে কিন্তু দিব্যি লাগছে তাঁকে। কিন্তু নিন্দুকেরা সেকথা মানতে নারাজ। তাঁরা বলছেন, নিক জোনাসকে বিয়ে করার পর থেকে বিতর্ক যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না দেশি গার্লের।