এরশাদ পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ প্রেমিক

বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে মূল্যায়ন করতে গিয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সাবেক স্ত্রী বিদিশা বলেছেন,উনি ছাড়া বাংলাদেশ হতো না। প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত, সব সময়ই আমি এটা বলে আসছি। এত ত্যাগী নেতা আমি কোথাও দেখিনি। উনার জীবনী যখন পড়ি, অবাক লাগে। এত কষ্ট কীভাবে উনি করেছেন? এত জেল-জুলুম। সে কারণে আজও উনার পপুলারিটি আকাশছোঁয়া।

মঙ্গলবার (২৮ মে) এক সাক্ষাতকারে বিদিশা কথা বলেছেন এরশাদের সঙ্গে তার প্রেম-ভালোবাসা-বিচ্ছেদ, বাংলাদেশের রাজনীতি এবং একমাত্র সন্তান এরিককে নিয়ে।

এরশাদের অবর্তমানে জাতীয় পার্টির ভবিষ্যত জিরো হবে, এটা বিদিশা মনে করেন না । তিনি বলেন, রংপুরের একটা ব্যাপার আছে, এরশাদের নামের ওপরই ওখানে সব চলে।

পুত্র এরিককে অসম্ভব ইন্টেলিজেন্ট উল্লেখ করে তিনি বলেন, সে তো সারাক্ষণই বাবার কথা বলে। আমার এখানে আসার পর খেতে দিলে বলে, একটু খাবার রেখে দিই, মা বাবার জন্য? এই কেমিস্ট্রিগুলো সাধারণত কোনো ছেলে বাচ্চার মধ্যে দেখিনি, মেয়েদের মধ্যে দেখেছি। এগুলো দেখে মনে মনে শান্তি পাই।

এরশাদ সাহেবের ওপর রওশন এরশাদের প্রভাব সম্পর্কে বিদিশা বলেন, আমি উনার সম্পর্কে কিছু জানি না। তবে উনারও তো এখন আর দেয়ার কিছু নেই। রিটায়ারমেন্টে প্রায় চলেই গেছেন। বয়স ৮৪-৮৫ বছর হবে। উনি যে সংসদে বিরোধী দলের নেত্রীর দায়িত্ব পালন করলেন, এটা পরিস্থিতির দাবি, অন্য কিছু নয়।

তিনি বলেন, এরশাদের প্রেমে পড়াটা ভুল ছিলো এমনটা কখনো মনে হয়নি। এরশাদের মতো কেউ তো আমাকে ভেজা রুমালে শিউলি ফুল দিয়ে ঘুম ভাঙাবে না। এমন প্রেমিক পৃথিবীতে নেই। আমি তো মনে করি, এরশাদ এখনো পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ প্রেমিক। সেটা নাটক হয়ে থাকে নাটক। কিন্তু আমি তো এনজয় করেছি।

জিয়াউর রহমান সম্পর্কে তিনি বলেন, উনাদের সম্পর্কে কথা বলাটা আমাদের মতো মানুষদের মানায় না। আমরা অনেক ছোট মানুষ। তাদের ত্যাগ, তাদের পলিটিক্স, তাদের শিক্ষা-দীক্ষা অনেক উঁচুমানের। সেসবের কাছে আমরা নস্যি। তারা শুধু দিয়েই গেছেন, কিছু নেননি।

বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সেক্রিফাইস তিনি পছন্দ করেন বলে জানান। শেখ হাসিনা সম্পর্কে তিনি বলেন, বেসিক্যালি উনি তো এতিম মানুষ। উনার কি আছে? শুধু তো দিয়েই যাচ্ছেন। রিটার্ন কী পেয়েছেন- হয়তো জনগণের ভালোবাসা। আর আমি কী বলব শেখ হাসিনা সম্পর্কে, তার সম্পর্কে তো বড় বড় কথা বলেছেন মাহাথির মোহাম্মদ, বিল গেটস, নরেন্দ্র মোদি, মমতা।

নিজের বর্তমান কর্মকাণ্ড সম্পর্কে বিদিশা বলেন, কাজটাকেই আপাতত গুরুত্ব দিচ্ছি। এখন আমরা কিছু প্রোডাক্টও মার্কেটিং শুরু করেছি উত্তরবঙ্গ থেকে। সেখানে আমাদের ডিমান্ডও ভালো। আমাদের সব প্রোডাক্ট হলো বিদিশার নামে। যেমন বিদিশা আটা, বিদিশা ময়দা, বিদিশা সুজি। আমরা কম মূল্যে ভেজালমুক্ত সামগ্রী মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে চাই।