বেল্ট খুলে নারীকে পিটিয়ে পুলিশের অশ্লীল প্রশ্ন

গোল করে চেয়ার পাতা, মাঝে দাঁড়িয়ে আছেন এক নারী। বারবার নিজের আঁচল টেনে শরীর ঢাকছেন। তাঁকে মাঝে রেখে চারপাশে ঘুরপাক খাচ্ছেন দুই পুলিশ সদস্য। চোখে তাদের কু-নজর, আর মুখে হাসি-ঠাট্টাসহ নানা বাজে ইঙ্গিত।

হঠাৎ দুই পুলিশ সদস্যের একজন কোমর থেকে চামড়ার বেল্ট খুলে সপাট সপাট আঘাত করতে থাকেন ওই নারীর শরীরে।

একবার নয়, একাধিকবার তাঁকে বেল্ট দিয়ে মারা হয়। অসহায় নারী কাকুতি-মিনতি করলেও কোনো পাত্তা দেননি তারা। এমন দৃশ্যের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত ফরিদাবাদ পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চলেছে প্রশাসন। খবর: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

সাত মাস আগে এ ঘটনা ঘটে ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের ফরিদাবাদ জেলায়।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয় ভিডিওটি। এই ঘৃণ্য ঘটনায় জড়িত ছিলেন ফরিদাবাদের আদর্শনগর পুলিশ স্টেশনের সদস্যরা। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, নারীর কাছে তাঁর ফোন নম্বর চাচ্ছেন দুই পুলিশ সদস্য। মাঝে মাঝে গায়ে পড়ছে চামড়ার বেল্টের আঘাত।

পুলিশ জানায়, পার্কের ভেতর ওই নারী ও এক ব্যক্তিকে অশালীন অবস্থায় দেখা যায়। পুলিশ ধরতে গেলে পুরুষ ব্যক্তিটি পালিয়ে যান। দুইজনে পার্কে কী করছিলেন?-এমন প্রশ্নে ওই নারীকে মারতে মারতে ক্রমাগত জেরা করতে থাকে পুলিশ।

ভিডিওটিতে যে দুই পুলিশ সদস্যকে দেখা যাচ্ছে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদেরকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া ওই ঘটনায় তিন পুলিশ কর্মকর্তাকে তাদের পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।