সংবাদ প্রকাশের পর : লক্ষ্মীপুর বিআরটিএ কার্যালয়ে দুদকের অভিযান : পর্ব ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক :

জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল শীর্ষ সংবাদ ডটকমে সংবাদ প্রকাশের পর লক্ষ্মীপুর বিআরটিএ কার্যালয়ে অভিযান চালিয়েছে দুদক । আজ (২১ মে) মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অর্থের বিনিময়ে লাইসেন্স প্রদান ও হয়রানিসহ বিভিন্ন অভিযোগে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটির (বিআরটিএ) লক্ষ্মীপুর কার্যালয়ে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক।

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)’র নোয়াখালী কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক সুবেল আহমেদ এ অভিযান পরিচালনা করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, দুদকের নোয়াখালী কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক মো. শরিফুল ইসলাম, উপ-সহকারি পরিচালক আরিফ আহম্মেদ। অভিযানের সময় দুদকের কর্মকর্তাগণ লক্ষ্মীপুর জেলা স্টেডিয়াম এলাকায় বিআরটিএর লাইসেন্স আবেদনকারীদের ব্যবহারিক পরীক্ষাস্থলও পরিদর্শন করে।
এসময় ভূক্তভোগী গ্রাহকগণ বিআরটিএ কার্যালয়ের অনিয়ম-দূর্নীতি, কর্মচারীদের অসহযোগিতা, মোটরযান এনডোর্সমেন্ট, মোটরযানের রেজিস্ট্রেশন, ফিটনেস সার্টিফেকেট, স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স, মোটরযানের শ্রেণী পরিবর্তন বা সংযোজন/ ধরণ পরিবর্তন/অন্তর্ভুক্তি/পিএসভি/তথ্য সংশোধন, ডুপ্লিকেট সার্টিফিকেট, রুট পারমিটসহ বিভিন্ন কাজে ঘুষ বাণিজ্য, দালালদের দৌরাত্মসহ বিভিন্ন হয়রানির অভিযোগ তুলে ধরেন। পরে দুদকের সহকারি পরিচালক সুবেল আহমেদ অভিযোগের ভিত্তিতে বিআরটিএ’র কার্যালয়ের অফিস সহকারি মাহবুব কে প্রাথমিক সর্তকমূলক নোটিশ দেওয়ার জন্য বিআরটিএ সহকারি পরিচালক আনোয়ার হোসেনকে নির্দেশ প্রদান করেন।
একই সাথে অন্যনান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের প্রাথমিক ভাবে সতর্ক করা হয়।

দুর্নীতি দমন কমিশনের নোয়াখালী কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক সুবেল আহমেদ শীর্ষ সংবাদকে জানান, অভিযোগের ভিত্তিত্বে ও দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রধান কার্যালয়ের নির্দেশক্রমে লক্ষ্মীপুর বিআরটিএ কার্যালয়ে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এতে গ্রাহকদের অভিযোগের ভিত্তিতে কার্যালয়ের অফিস সহকারি মাহবুবকে সর্তকতার নোটিশ দিতে বলা হয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রাথমিক ভাবে সতর্কতা মূলক করা হয়েছে।
দূর্নীতি মুক্ত সোনার বাংলা গড়তে অভিযান অব্যহত থাকবে বলে জানান তিনি।

–চলবে