দক্ষিণ কোরিয়া-জাপানের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের ৬০ কোটি ডলারের ক্ষেপণাস্ত্র বিক্রির অনুমোদন

যুক্তরাষ্ট্র শুক্রবার জানিয়েছে, তারা দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের কাছে ৬০ কোটি ডলারের বেশি মূল্যের আকাশ প্রতিরক্ষামূলক ক্ষেপণাস্ত্র বিক্রির অনুমোদন দিয়েছে। উত্তর কোরিয়ার সাথে ফের উত্তেজনা বৃদ্ধির পর এ অনুমোদন দেয়া হলো। খবর এএফপি’র।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর জানায়, তারা মোট ব্যয়ের ৩ কোটি ৩৯ লাখ ডলার মূল্যের ৯৪টি এসএম-২ ক্ষেপণাস্ত্র এবং ১২টি গাইডেন্স সিস্টেমস বিক্রির অনুমোদন দিয়েছে। এসএম-২ ক্ষেপণাস্ত্র আকাশসীমার হুমকি মোকাবেলায় যুদ্ধজাহাজ থেকে ব্যবহৃত হয়।
তারা পৃথকভাবে ৩১ কোটি ৭০ লাখ ডলার মূল্যের ১৬০টি এন্টি-এয়ার আমরাম ক্ষেপণাস্ত্র ও গাইডেন্স সংক্রান্ত সরঞ্জামাদি জাপানের কাছে বিক্রির সবুজ সংকেত দিয়েছে।

পররাষ্ট্র দপ্তরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের বৈদেশিক নীতি ও জাতীয় নিরাপত্তার বিষয় মাথায় রেখে ওয়াশিংটনের গুরুত্বপূর্ণ মিত্রদের সহযোগিতায় এসব অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন দেয়া হয়। এতে এ অঞ্চলের মৌলিক সামরিক ভারসাম্যের কোন পরিবর্তন হবে না।

গত সপ্তাহে চালানো উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ব্যাপারে দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী জানায়, এক সপ্তাহের কম সময়ের মধ্যে তারা যে দ্বিতীয় ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করে সেটি স্বল্প-পাল্লার হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে আলোচনার অচলাবস্থার মধ্যেই পিয়ংইয়ং এসব ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায়। উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধের বড়াই করেছিলেন।

উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক কর্মসূচির অবসানে পিয়ংইয়ং জোরালো পদক্ষেপ না নেয়া পর্যন্ত তাদের বিরুদ্ধে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা শিথিলের দাবি ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে প্রত্যাখান করায় গত ফেব্রুয়ারিতে ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের মধ্যে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় সম্মেলন কোন চুক্তি ছাড়াই ভেঙ্গে যায়।

সূত্র : বাসস