লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজে আনন্দ উচ্ছ্বাসে বসন্ত বরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

হে কবি! নীরব কেন-ফাগুন যে এসেছে ধরায়, বসন্ত বরিয়া তুমি লবে না কি তব বন্দনায়? কবিতা নয়, প্রকৃতিতে ঋতুরাজ বসন্ত এসে গেছে। আর বসন্তকে বরণের জন্য প্রকৃতিও সেজেছে অপরূপ রূপে। তেমনিভাবে ঋতুরাজ বসন্তকে বরণে লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজ কর্তৃপক্ষ মেতে উঠেন অন্যরকম এক উৎসবে। সকাল থেকে গানের সুরে, নৃত্যের তাল আর বাদ্যের ঝংকারে মুখরিত হয়ে উঠে পুরো ক্যাম্পাস। নতুন সাজে তরুণ তরুণীরা অংশ নেন এ উৎসবে। উৎসবকে ঘিরে ২০টি স্টলে বিভিন্ন মজাদার পিঠা নিয়ে মেলাও বসিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

বসন্ত বরণ উৎসবে কলেজ অধ্যক্ষ মাইন উদ্দিন পাঠানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য একেএম শাহজাহান কামাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর মেয়র আবু তাহের। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শাহাদাত হোসেন শরীফ, সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল করিম নিশান, কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি ফাহাদ বিন কামাল মাহি, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা।

এসময় প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, সরকার নবীণদের মন্ত্রী বানিয়ে প্রবীণদের বিশ্রামে পাঠিয়েছেন। আমরা প্রবীণরা এখন বিশ্রামে। তবে যে কোন সময় মন্ত্রী পরিষদেও রদবদল হতে পারে। এ সরকার উন্নয়ন ও জনগণের সরকার। শিক্ষা ব্যবস্থায়ও আমুল পরিবর্তন আনা হয়েছে। নতুন মন্ত্রী পরিষদের অনেকে ছোট ভাই, তাদেরকে অনুরোধ করলে রাখবেন। তাই আপনাদের সমস্যাগুলো লিখিত আকারে জানালে তা বাস্তবায়নে সর্বাত্মক চেষ্টা করবো।

কলেজটির কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, ফুলের বসন, মধুময় বসন্ত, যৌবনের উদ্দামতা বয়ে আনার বসন্ত আর আনন্দ, উচ্ছ্বাস ও উদ্বেলতায় মন-প্রাণ কেড়ে নেওয়ার প্রথম দিন আজ। পুরনো দিনের গ্লানি ভুলে নতুন করে প্রকৃতির সঙ্গে নিজেদের বদলাতে নতুন সাজে সেজেছেন তারা।

একই সঙ্গে কলেজের নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ ও স্থানীয় নব নির্বাচিত সাংসদকে ফুলেল সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

শীর্ষ সংবাদ/এফএইচ