হুয়াওয়ে বিতর্কে চীনে নিযুক্ত কানাডার রাষ্ট্রদূতকে বরখাস্ত করলেন ট্রুডো

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো শনিবার বলেছেন, বেইজিংয়ে নিযুক্ত কানাডার রাষ্ট্রদূত তার নির্দেশ অনুযায়ী পদত্যাগ করলে তিনি তার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন।
কানাডায় আটক হুয়াওয়ের শীর্ষ নির্বাহীকে হস্তান্তরে যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধের প্রেক্ষিতে চীন ও কানাডার মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্কের চরম অবনতির প্রেক্ষিতে এ ঘটনা ঘটল।
হুয়াওয়ের শীর্ষ নির্বাহীকে আটকের জন্য চীন কানাডার তীব্র নিন্দা ও সমালোচনা করে।
ট্রুটো এক বিবৃতিতে বলেন, ‘গতরাতে আমি চীনে নিযুক্ত কানাডার রাষ্ট্রদূত জন ম্যাককালামকে পদত্যাগ করতে বলি। তিনি পদত্যাগ করলে আমি তার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করি।’
চীনের টেলিকম জায়ান্ট হুয়াওয়ের প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা মেং ওয়ানঝৌকে নিয়ে মন্তব্য করে সম্প্রতি ম্যাককালাম খবরের কাগজের শিরোনাম হন।
১ ডিসেম্বর ভ্যাঙ্কুবারে মেংকে গ্রেফতার করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র তাকে হস্তান্তরের জন্য কানাডার কাছে অনুরোধ জানিয়েছে। তিনি জামিনে জেল থেকে ছাড়া পেয়েছেন।
ম্যাককালাম মঙ্গলবার চীনে কারাগারে আটক দুই কানাডিয়ান নাগরিক ও মৃত্যুদ-াদেশ প্রাপ্ত অপর এক কানাডিয়ানের দুরবস্থা সম্পর্কে আইন প্রণেতাদের ব্রিফ করেন।
ব্রিফিংয়ের পর মারখাম, ওন্টারিওতে তিনি চায়নিজ ভাষার গণমাধ্যমকে বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ওই হস্তান্তর আবেদনে বড় ধরনের ত্রুটি রয়েছে।
তিনি মেং এর হস্তান্তরে যুক্তরাষ্ট্রের আবেদনের ব্যাপার বলেন, কানাডা ইরানের ওপর অবরোধে স্বাক্ষর করেনি। অথচ ওয়াশিংটন এই ইস্যুতেই মেংকে তাদের কাছে হস্তান্তর করার অনুরোধ জানিয়েছে