আমরা একটি বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন চাই

Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা  : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি দশম জাতীয় নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় যে অবস্থা তৈরি হয়েছিল এ নির্বাচনে তারা অংশ না নিলেও সে অবস্থা তৈরি হবে না।
তিনি বলেন, ‘আমরা একটি বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন চাই। কোন অবস্থাতেই নির্বাচনের পরিবেশ ক্ষুন্ন হোক তা চাই না। তবে গতবার বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিয়ে যে অবস্থা তৈরি হয়েছিল সেটা এবার হবে না।’
ওবায়দুল কাদের আজ সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।
এ সময় আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর, কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য মির্জা আজম, এস এম কামাল হোসেন ও আনোয়ার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা চেষ্টা করবো কোনভাবেই যেন লেবেল প্লেয়িং ফিল্ড নষ্ট না হয়। কোন অবস্থাতেই একতরফা অবস্থা তৈরি করে নির্বাচন করতে চাই না। কারণ অপজিশন ছাড়া প্রতিদ্বন্ধিতা হয় না।
তিনি বলেন, জনগণ সিদ্ধান্ত নেবে কাকে ভোট দেবে। আমরা ফাঁকা মাঠে গোল দেব, প্রধানমন্ত্রী এটা কোনভাবেই চান না।
এক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, মনোনয়নপত্র বাতিলের সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণভাবেই নির্বাচন কমিশনের। এখানে সরকারের কোন হাত নেই। নির্বাচনের কাজে সরকার আগেও হস্তক্ষেপ করে নি, ভবিষ্যতেও করবে না।
তিনি বলেন, নির্বাচনে কাদের যোগ্য বা অযোগ্য ঘোষণা করবে সেটা শুধু নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ার। সরকারের ওপর দোষারোপ করা অন্যায় হবে।
বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্র বাতিলের বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার দু’বছরের অধিক কারাদন্ড হয়েছে। এ বিষয়ে আদালতের নির্দেশনা রয়েছে। সরকারের কিছু করার নেই।
তিনি বলেন, যারা ঋণখেলাপী ও ইসির আইনে নির্বাচনে অযোগ্য তাদের প্রার্থীতা বাতিল হলে কারো কিছু করার নেই।
হাজী মোহাম্মদ সেলিমের মনোনয়নপত্র বাতিল না হওয়া প্রসঙ্গে বিএনপির অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে কাদের বলেন, হাজী সেলিমের এটা সৌভাগ্যের বিষয়। তিনি টিকে গেছেন। এতে আমাদের কি করার আছে।
তিনি বলেন, আমাদের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাতিল হতে পারে এমন আশঙ্কায় বেশ কিছু আসনে একের অধিক মনোনয়ন দিয়েছি। হাজী সেলিমের আসনেও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতকে বিকল্প প্রার্থী হিসেবে রেখেছি।
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে নির্বাচন থেকে সরে না দাঁড়ানোর আহবান জানিয়ে সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, গতকাল এলডিপি নেতা কর্নেল (অব.) অলি আহমেদের সঙ্গে আমার ফোনে কথা হয়েছে। তাকে আশ্বস্ত করেছি, আমরা একতরফা নির্বাচন চাই না। লেবেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করার জন্য ইসিকে আমরা সর্বোচ্চ সহায়তা করব।
তিনি বলেন, আমরা প্রতিদ্বন্ধিতাপূর্ণ নির্বাচনের মাধ্যমে বিজয়ী হতে চাই। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাও একতরফা নির্বাচন করে বিজয়ী হতে চান না।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা হস্তক্ষেপ করে থাকলে আমাদের শরীক জাতীয়পার্টির মহাসচিব রহুল আমিন হাওলাদারের প্রার্থীতা বাতিল হয় কিভাবে? এতে কি আমাদের মনোকষ্ট হচ্ছে না?

–বাসস