হাই-টেক পার্কে বিনিয়োগে চীনের আগ্রহ প্রকাশ

Print Friendly, PDF & Email
হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিতে বিনিয়োগ করতে চীনের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান আগ্রহ প্রকাশ করেছে।চীনা কোম্পানিগুলোর প্রতিনিধিরা বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধির অংশীদার হতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। বাংলাদেশের উন্নয়নের সহযাত্রী হতে তারা আন্তরিকভাবে কাজ করতে ইচ্ছুক।
আজ মঙ্গলবার হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে চীনের স্যানডং প্রদেশের দিঝউ সিটির ২০টি কোম্পানির প্রায় ৩৫ জন প্রতিনিধি মতবিনিময়কালে এই আগ্রহ প্রকাশ করেন।হাই-টেক পার্ক সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় বাংলাদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রগুলো চীনা প্রতিনিধিদের অবহিত করা হয়।সভায় হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব) হোসনে আরা বেগম সভাপতিত্ব করেন।ব্যবস্থাপনা পরিচালক বাংলাদেশের হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিতে বিনিয়োগের অপার সম্ভাবনার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। বাংলাদেশে সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগ যে ক্রমবর্ধমান হারে বেড়ে চলেছে তার পরিসংখ্যানভিত্তিক উপস্থাপনায় ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, বাংলাদেশে এখন বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ বিরাজ করছে। চীনা কোম্পানিগুলো এই সুযোগ কাজে লাগাতে পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন।হোসনে আরা বেগম জানান, ইতোমধ্যে কালিয়াকৈরে উৎপাদিত পণ্য বিদেশে রফতানি শুরু হয়েছে। শিগগিরই সেখানে ল্যাপটপ অ্যাসেম্বলিং শুরু করবে। এখানে নামে মাত্র মূল্যে জমি লিজ দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম প্রণোদনা সুবিধা দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।সভায় সিলেট ইলেক্ট্রনিক সিটি প্রকল্পের পরিচালক ব্যরিস্টার মো. গোলাম সরওয়ার ভূঁইয়া বলেন, সিলেটে বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পেও বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। চীনা প্রতিষ্ঠানগুলো এখানে বিনিয়োগ করলে সব ধরনের সহযোগিতা করতে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ প্রস্তুত।এ ছাড়া অন্যান্য প্রকল্পের পরিচালক তাদের প্রকল্প এলাকায় বিনিয়োগের পরিবেশ এবং সুবিধার বিষয়গুলো চীনা প্রতিনিধিদের সমনে তুলে ধরেন।