শেখ হাসিনার সরকারকে আরেকবার ক্ষমতায় আনতে হবে : চবি ভিসি

Print Friendly, PDF & Email

একমাত্র শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষার আমূল অগ্রগতি সম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ভাইস চ্যান্সেলর (ভিসি) প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থ, শান্তি, উন্নয়ন ও নিরাপত্তা অক্ষুণ্ন রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারকে আরেকবার ক্ষমতায় আনতে হবে বলে মনে করেন তিনি।

সম্প্রতিি একটি অনলাইনকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে ভিসি এসব কথা বলেন।

প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় চবিতে শিক্ষা ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন পূর্ণ গতিতে এগিয়ে চলেছে। সীমানা প্রাচীর, ডিজিটালাইজেশন, নতুন বিভাগ প্রতিষ্ঠাসহ শান্তিপূর্ণ ক্যাম্পাস নিশ্চিত করা সম্ভব হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনার সফল ও সুযোগ্য নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকারকে আরেকবার ক্ষমতায় এনে আমরা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিপূর্ণ উন্নয়ন ও বিকাশ অর্জন করতে চাই।

তিনি বলেন, ভিসি চেয়ারকে আমি জায়নামাজ ঘোষণা করেছি। কোনও অন্যায়ের কাছে আমি মাথা নত করবো না। ক্যাম্পাসকে স্থিতিশীল, শান্তিপূর্ণ ও উন্নয়নমুখী রাখতে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে কাজ করে যাবো। সন্ত্রাসী, দুর্নীতিবাজ অপশক্তিকে বিন্দুমাত্র ছাড় দেওয়া হবে না।

সফলভাবে ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন প্রসঙ্গে ভিসি বলেন, বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ‘এন্টি প্রক্সি অ্যাপস’ ব্যবহার করে আমরা প্রশ্নপত্র ফাঁস ও অসুদপায় অবলম্বনের সব পন্থা বন্ধ করেছি। আমরা যোগ্য ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বঞ্চিত করে অযোগ্যদের চলে আসার কোনও রাস্তা রাখি নি। কারণ প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে একবিংশ শতাব্দীর জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গঠনে যোগ্য মানবসম্পদ গড়ে তুলতে আমরা বদ্ধপরিকর।

ভর্তি পরীক্ষায় সফলতার জন্য অভিভাবক মহল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা ভিসি প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীকে অভিনন্দন জানাতে এলে তিনি বলেন, আল্লাহ রহমতে ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের পূর্ণ সমর্থন ও শিক্ষক সমাজের আন্তরিক সহযোগিতায় আমরা পরিবহন ধর্মঘট ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যেও সফলভাবে ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন করতে পেরেছি। ভর্তিচ্ছুদের উপস্থিতির হারও ছিল অতীতের চেয়ে বেশি। পরীক্ষায় সামান্যতম ত্রুটিবিচ্যুতিও হয়নি। এই অভাবনীয় সাফল্যের কৃতিত্ব শেখ হাসিনার সরকার ও শিক্ষক সমাজের প্রাপ্য।

তিনি আরও বলেন, চবির প্রতি প্রধানমন্ত্রীর সুনজর রয়েছে। তার নির্দেশনায় আমরা বিশ্ববিদ্যালয়কে উন্নততর পর্যায়ে নিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছি। সামনের দিনগুলো আমরা বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান চবিকে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম ক্যাম্পাসে পরিণত করবো ইনশাআল্লাহ।

সংগৃহিত