লক্ষ্মীপুরে মাদকবিরোধী অভিযান : তিন মাসে ২৭৪টি মামলা গ্রেফতার ৩৫৫

Print Friendly, PDF & Email

নিজস্ব প্রতিবেদক :

সারা দেশের মতো লক্ষ্মীপুরেও চলছে মাদকবিরোধী অভিযান। অভিযানের অংশ হিসেবে গত তিন মাসে জেলায় ২৭৪টি মামলা হয়েছে। এছাড়া গ্রেফতার করা হয়েছে ৩৫৫ জনকে।

জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণার পর গত তিন মাসে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী জেলার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে ৩৫৫ জনকে গ্রেফতার করেছে। তাদের কাছ থেকে ১২ হাজার ৮০৫ পিস ইয়াবা, ৭৯ কেজি গাঁজা ও ৮০ লিটার চোলাই মদ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য প্রায় ১ কোটি টাকা। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে গত তিন মাসে ২৭৪টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর মাত্র ১৫ জনকে গ্রেফতার ও ১ হাজার ৫০ পিস ইয়াবা, ৪৫০ গ্রাম গাঁজা ও ৪০০ লিটার চোলাই মদ উদ্ধার করেছে।

সূত্র জানায়, বিশেষ অভিযান শুরুর পর থেকেই চিহ্নিত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীরা আত্মগোপন করেছেন। তবে এর মধ্যে কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত ২২ মে লক্ষ্মীপুর শহরের ল’ইয়ার্স কলোনি থেকে তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী যুবলীগ নেতাকে ১০০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করা হয়।

সচেতন নাগরিক কমিটির (সনাক) সদস্য জেডএম ফারুকী বলেন, ছোট মাদক ব্যবসায়ীরা ধরা পড়লেও গডফাদাররা ঠিকই ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। দেশের মধ্যে মাদক উৎপাদন, সরবরাহ, বিপণন, বাইরে থেকে আমদানি বন্ধের পাশাপাশি সব শ্রেণী-পেশার মানুষকে সচেতন হতে হবে। মাদক সেবনকারী ও খুচরা ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি বড় মাদক ব্যবসায়ীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। তবেই মাদক নির্মূল করা সম্ভব হবে।

জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মো. নজীব আলী বলেন, জনবল সংকটের কারণে মাঠে সক্রিয়ভাবে কাজ করতে পারছি না। তার পরও সচেতনতার জন্য বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভিডিও ডকুমেন্টারি প্রদর্শন ও সভা-সেমিনারের আয়োজন করছি। মাঝেমধ্যে কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীকে গ্রেফতার করে শাস্তির ব্যবস্থা করছি।

জেলা পুলিশ সুপার আ স ম মাহাতাব উদ্দিন বলেন, সরকারের জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণার পর থেকেই বিশেষ অভিযান চলছে এবং বর্তমানেও অব্যাহত রয়েছে। গত তিন মাসে প্রায় ১ কোটি টাকা মূল্যের মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে। মাদক ব্যবসা ও সেবনের সঙ্গে জড়িতদের বেশির ভাগকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। এতে এলাকাভিত্তিক মাদকের নৈরাজ্য অনেকটা কমেছে। কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।