‘ভারতে প্রবেশে কার্লাইলের কাগজপত্রে ঘাটতি ছিল’

Print Friendly, PDF & Email

গাজীপুর :

বেগম খালেদা জিয়ার ব্রিটিশ আইনজীবী লর্ড কার্লাইলের ভারত থেকে ফিরিয়ে দেয়ার ব্যাপারে বাংলাদেশ সরকারের কোনো হাত নেই বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তবে তার ভারতে প্রবেশে কাগজপত্রে ঘাটতি থাকায় ভারত সরকার তাকে প্রবেশ করতে দেয়নি।

শুক্রবার (১৩ জুলাই) দুপুরে গাজীপুরের চন্দ্রায় আগামী কোরবানির ঈদের সড়ক প্রস্তুতি পরিদর্শন করতে এসে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

এসময় তিনি বলেন, ব্রিটিশ আইনজীবী লর্ড কার্লাইলকে ভারতে আসতে বাধার ব্যাপারটি ভারতের ইন্টারনাল বিষয়। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে এ বিষয়ে কিছুই করার নেই। তবে আমরা যতদুর জানি তার ভারতে প্রবেশে কাগজপত্রে ঘাটতি থাকায় ভারত সরকার তাকে প্রবেশ করতে দেয়নি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এবারের ঈদ যাত্রা স্বস্তিদায়ক করতে অন্যান্য বছরের মতো ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে এতো বেশি পুলিশ মোতায়েন করার প্রয়োজন পড়বে না। কারণ এবার রাস্তা অনেক প্রশস্ত করা হয়েছে এবং ২৩ ব্রিজের উপর দিয়ে গাড়ি চলাচল করতে পারবে। ঈদে মহাসড়কের পাশে কোনো পশুর হাট বসবে না। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়া ফিটনেজবিহীন পশুবাহী গাড়ী যাতে সমস্যা করতে না তার জন্য প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

সিটি নির্বাচন নিয়ে সেতুমন্ত্রী জানান, নির্বাচন কমিশনের নিয়মানুসারে নির্বাচন হবে। সরকার কোনো প্রকার হস্তক্ষেপ করবে না। এছাড়া সরকার দলের পক্ষ থেকে আচরণবিধি লঙ্ঘন করা হবে না। পরিদর্শনকালে মন্ত্রীর সাথে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাসেক প্রজেক্টের প্রজেক্ট ম্যানেজার জিকরুল হাসান, ঢাকা বিভাগীয় সড়ক ও জনপথের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সবুজ উদ্দিন খানসহ সড়ক বিভাগের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা।