এলপি গ্যাস ব্যবহার সম্পর্কে যা বললেন লক্ষ্মীপুরের ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা

Print Friendly, PDF & Email

নিজস্ব প্রতিবেদক :
বাসা-বাড়িতে এলপিজি (লিকুইফাইড পেট্রোলিয়াম গ্যাস) বা এলপি গ্যাস ব্যবহারে লক্ষ্মীপুরবাসীকে সচেতনতা অবলম্বন করার আহ্বান জানিয়েছেন জেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারি পরিচালক ফরিদ আহম্মদ চৌধুরী।

সোমবার (৪ জুন) দুপুরে শীর্ষ সংবাদকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ আহ্বান জানান। এসময় তিনি এলপি গ্যাস ব্যবহারকারীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এলপি গ্যাস সিলিন্ডার নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন, আপনার ঘরে রক্ষিত গ্যাস সিলিন্ডারটি বোমায় রূপান্তরিত হওয়া প্রতিহত করুন। যেকোনো দূর্ঘটনা বা ঝুঁকি এড়াতে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া আপনার দায়িত্ব।

মনে রাখবেন, ফায়ার সার্ভিস বা সিভিল ডিফেন্স আসবে আগুন লাগার পরে, আপনার কাজ আগুন লাগতে না দেওয়া। গ্যাস সিলিন্ডার জনিত দূর্ঘটনা আর সংশ্লিষ্ট ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা এড়িয়ে নিজের পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন। অসাবধানতা, উদাসীনতা আর অজ্ঞতা গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহারকারীদের পরিবারে দীর্ঘমেয়াদী ক্ষতি করতে পারে।

এলপি গ্যাস নিরাপত্তা সম্পর্কে জেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্মকর্তা আরো বলেন, সিলিন্ডার বেচাকেনার সময় মেয়াদ, রং এবং রাবার সিলটি ভালোভাবে চেক করতে হবে। রোদ ও বৈদ্যুতিক সকেট থেকে দূরে এবং সবসময় বাতাস চলাচল করে এমন নিরাপদ স্থানে সিলিন্ডার রাখতে হবে।

বাসায় কেউ যদি বাতাসে গ্যাসের গন্ধ পায়, তা এলপিজি সিলিন্ডারের লিকেজ এর কারণে হতে পারে। এমতাবস্থায় লাইটার বা দিয়াশলাই জ্বালিয়ে লিকেজ হয়েছৈ কিনা নিশ্চিত করা মারাত্মক বিপজ্জনক। বাতাসে গ্যাসের গন্ধ পেলে দরজা-জানালা খুলে দিন এবং সিলিন্ডারের গ্যাস প্রবাহ বন্ধ করুন।

সবসময় অনুমোদিত লো-প্রেসার রেগুলেটর ব্যবহার করুন। উন্নতমানের সংযোগ পাইপ (সিলিন্ডার থেকে চুলার সংযোগে) ব্যবহার করুন। এছাড়াও অনাকাঙ্খিতভাবে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ঘটলে আতঙ্কিত না হয়ে সতর্কতা অবলম্বন করার আহ্বান জানান এই কর্মকর্তা।