ভালুক আর শেয়াল

Print Friendly, PDF & Email

এক সময় এক বনে এক ভালুক আর এক শেয়াল পাশাপাশি বাস করতো। দুইজনের এমন বন্ধুত্ব ছিল যে, বনের অনেকেই তাদের হিংসে করতো। দুই বন্ধু এক সঙ্গে ঘুরতে ঘুরতে একদিন এক নদীর তীরে এক শ্মশানে এসে হাজির হলো। আগের দিন কাছেরই  কোন গ্রামের লোকেরা তাদের এক আত্নীয়ের মৃতদেহ সৎকার করতে এসেছিল।

এমন সময় প্রচন্ড ঝড়-বৃষ্টি আসায় মৃতদেহটি আধপোড়া অবস্থায় ফেলে রেখেই তারা পালিয়ে গিয়েছিল। শেয়াল ঐ মৃতদেহটা দেখে খুশি হয়ে ভালুককে বললো-আহা! আজ কার মুখ দেখে যে উঠেছিলাম! ও: দেখছো কি হ্রষ্টপুষ্ট মানুষের দেহ, চলো চলো আমরা গিয়ে এখুনি ওটা খাই, বলতে বলতে শেয়ালের মুখ দিয়ে লালা পড়তে লাগলো।

ভালুক শেয়ালের কথা শুনে হেসে বললো-তুমি খাবে খাও, আমি তোমার মত নীচ নই, আমি মরা মানুষ খাওয়াতো দূরের কথা , স্পর্শ পর্যন্ত করি না।

ভালুকের এই রকম কথা শুনে শিয়াল কিছু মাএ লজ্জিত না হয়ে তখনই বলে উঠলো বন্ধু, তুমি যা বললে সবই ঠিক। কিন্তু আমার কথা হচ্ছে, তুমি যদি জ্যান্ত মানুষ দেখলেই তাকে মেরে না ফেলতে তাহলে আমিই জোর গলায় বলতাম-তুমি আমার চেয়ে উচ্চশ্রেণীর প্রানী এবং মহৎ।

উপদেশ: মৃত্যুর পর সম্মান দেখানোর চেয়ে জীবিতকালে সম্মান দেখানো অনেক ভাল