ভ্রমণে সেঞ্চুরী করলেন লক্ষ্মীপুরের নাজমুন নাহার সোহাগী

Print Friendly, PDF & Email


নিজস্ব প্রতিবেদক
লক্ষ্মীপুরের কৃতি সন্তান ভ্রমণপ্রিয় নাজমুন নাহার সোহাগী তার ভ্রমণের তালিকায় যুক্ত করে নিলেন ১০০টি দেশ।  বাংলাদেশের পতাকা হাতে শততম দেশ হিসেবে তিনি পা রেখেছেন জিম্বাবুয়েতে।

বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে এক ফেসবুক পোস্টে তিনি জানান, “হ্যালো বাংলাদেশ, আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা পরেই বাংলাদেশের পতাকা হাতে আমি পা রাখবো শততম দেশ জিম্বাবুয়েতে!”

লক্ষ্মীপুর জেলার সদর উপজেলা হামছাদী ইউনিয়নের নন্দনপুর এলকার মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম নেওয়া নাজমুন নাহার এর আগে এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, “আমার মনে হয়, আমি জন্মেছি ভ্রমণের জন্য।”

তিনি বলেছিলেন- “বিশ্বের কাছে বাংলাদেশকে তুলে ধরা, বাংলার কালচারকে তুলে ধরার আনন্দ কাজ করে এই ভ্রমণের মাধ্যমে। বাংলাদেশের মানচিত্র, পতাকা আমি পৃথিবীর সব দেশে নিয়ে যাচ্ছি।”

এ বছরেরই মার্চে বিশ্বের ৯৩টি দেশ ভ্রমণ শেষে তার অভিজ্ঞতা ও ঘুড়ে বেড়ানোর গল্প জানিয়েছিলেন তিনি। আর এবার আফ্রিকার ৭টি দেশ ভ্রমণের মাধ্যমে পৌঁছালেন শতকের কোঠায়।

বৃহস্পতিবারের ফেসবুক পোস্টটিতে নাজমুন নাহার জানান, ‘‘হ্যালো বাংলাদেশ, আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা পরেই বাংলাদেশের পতাকা হাতে আমি পা রাখবো একশতম দেশ জিম্বাবুয়েতে! আলহামদুলিল্লাহ! বাংলাদেশের পতাকা সর্বোচ্চ রেকর্ডপ্রাপ্ত দেশে! সবাই থেকো আমাদের এই লাল সবুজ পতাকাতলে! আমি হৃদয়ে ষোলো কোটি মানুষকে নিয়ে পায়ে হেটে যাত্রা করবো জাম্বিয়ার বিখ্যাত ভিক্টোরিয়া জলপ্রপাত থেকে জিম্বাবুয়েতে!

আজকের এই মুহূর্ত শুধু আমার নয়, এই গৌরবময় মুহূর্তের অংশীদার বাংলাদেশের ষোল কোটি মানুষ! এই মুহূর্তে তাদের যারা একটি বাংলাদেশের স্বাধীন পতাকা পাওয়ার জন্য যুদ্ধ করেছেন, প্রাণ হারিয়েছেন! আজ এই মুহূর্তে আমি সেই সব শহীদ মুক্তি যোদ্ধাদের কথা স্মরণ করছি! পৃথিবীর বিখ্যাত ভিক্টোরিয়া জলপ্রপাতের উপর যে ব্রিজটি রয়েছে তা আমার শততম দেশের সাক্ষী হবে!

এই ব্রিজটির অর্ধেক জাম্বিয়া তে বাকি অর্ধেক জিম্বাবুয়ে তে পড়েছে! আর বিখ্যাত ভিক্টোরিয়া জলপ্রপাত টি বহমান রয়েছে দু দেশের মধ্যে!

আজ ভিন্ন এক উদ্দীপনা কাজ করছে! শততম দেশে পায়ে হেটে যাত্রা! নিরান্নব্বইতম দেশ জাম্বিয়া থেকে পায়ে হেটে একশোতম দেশ জিম্বাবুয়ে তে যাত্রা! পূর্ণ হবে আমার শততম! হৃদয়ে বাংলাদেশে দুচোখে আমার একশতম! সবাই দোয়া করবেন!

(আফ্রিকার যে সাতটি দেশ ভ্রমণের মাধ্যমে পূর্ণ হচ্ছে শততম: ইথিওপিয়া, কেনিয়া, উগান্ডা, রুয়ান্ডা, তাঞ্জানিয়া, জাম্বিয়া, জিম্বাবুয়ে)”