বুকে সাহস থাকলে দেশে এসে রাজনীতি করো : তারেককে, বিমানমন্ত্রী

Print Friendly, PDF & Email


নিজস্ব প্রতিবেদক :
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল এমপি বলেছেন, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী শক্তি তারেক রহমানের জন্য টাকা পাঠায়। এ টাকায় লন্ডনে বসে তারেক ব্যবসা ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করে। মন্ত্রী হুশিয়ারি দিয়ে তারেকের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘বেটা’ বুকে সাহস থাকলে দেশে ফিরে এসে রাজনীতি করো, বিদেশে বসে দেশের উন্নয়নের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করবা না।

শনিবার দুপুরে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দিঘলী ইউনিয়নে বেশ কয়েকটি উন্নয়নমূলক কাজের উদ্বোধনকালে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় এসব কথা বলেন তিনি।

এসময় মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় বেগম জিয়া ক্যান্টনম্যান্টে আশ্রয় নিয়ে পাকিস্তানি সেনাদের সাথে আনন্দ উল্লাসে মেতে ছিলেন। অন্যদিকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার করার উদ্দেশ্যে পাকিস্তানি আর্মিরা পশ্চিম পাকিস্তানে নিয়ে বন্দী করে রেখেছিল। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে পাকিস্তানিদের পক্ষ হয়ে খালেদা জিয়া বাংলাদেশের স্বাধীনতা অস্বীকার করেছিলেন। তিনি অস্বীকার করেছিলেন, মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হওয়া ৩০ লক্ষ মানুষ ও ২ লক্ষ মা-বোনের ইজ্জত ছিনিয়ে নেওয়ার কথা।

মন্ত্রী আরো বলেন, খালেদা জিয়া নির্বাচন বিশ্বাস করেন না, জনগণের রায় বিশ্বাস করেন না। যে কারণে তিনি ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচন বাঞ্ছাল করতে হরতাল, অবরোধ ও যানবাহনে অগ্নি সংযোগ করে সাধারণ মানুষকে পুড়িয়ে হত্যার করার মাধ্যমে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করেছিলেন। ওই সময় তারেক রহমান লন্ডনে থেকে তার মা খালেদা জিয়াকে বলতেন, মা আন্দোলন চালিয়ে যাও।

তিনি আরো বলেন, বিএনপির রাজনীতির সূচনা হয়েছিল ক্রু এবং হত্যার মধ্যদিয়ে। আজ খালেদা জিয়া ও তার বড় ছেলে তারেক রহমান এ ধারা অব্যাহত রাখায় জনগণ বিএনপিকে বয়কট করে স্বতস্ফুর্তভাবে জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। কোনো ষড়যন্ত্র জনগণের রায়কে ধাবিয়ে রাখতে পারে নি। আগামী নির্বাচনেও জনগণ ভোটের মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে আবারো ক্ষমতায় এনে দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জয়নার আবেদিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রিয়াজ উদ্দিন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: শাহজাহান আলী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উল্যাহ, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শেখ মুজিবুর রহমান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ লিটন ও সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন বাবুল।

এরআগে দিঘলী নবীনগর সড়ক, নবীনগর জেনারেল হাসপাতাল, খাগুড়িয়া দারুল উলুম ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন, খাগুড়িয়া হাসপাতাল সড়ক, পূর্ব মান্দারী এনায়েত উল্যা মাষ্টার বাড়ির সামনে মান্দারী-দিঘলী খালের উপর ব্রীজের উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।