নিজের বিবেককে একবার প্রশ্ন করুন!

Print Friendly, PDF & Email

একটা পয়সার মতো সব ঘটনারও এপিঠ ও ওপিঠ থাকে। যার দুই পিঠ আমাদের চোখের সামনে উঠে আসে না। কিছু দেখলেই তৎক্ষণাৎ জাজম্যানটাল হয়ে কোন কিছু শেয়ার করার আগে পুরো ব্যাপারটি জানুন, বুঝুন, তথ্য যাচাই করুন। তারপর শেয়ার করুন।

বিশেষ করে যখন কোন বিষয়ে আমাদের সমাজে তার নেতিবাচক প্রভাব ফেলার আশঙ্কা থাকতে পারে বা বিভ্রান্তি ছড়াতে পারে বা মানুষের ভিতর অস্থিরতা আনতে পারে বা কারও বিনাদোষে সামাজিক অবস্থান হেয় প্রতিপন্ন হতে পারে।

ছোট্ট এক খণ্ড ভিডিও দেখলেন, তাতে আপনি সংবেদনশীল হয়ে পড়লেন এবং তা আবার শেয়ার করে দিলেন। কিন্তু আপনি জানলেন না, ঐ ভিডিও ক্লিপটির আগে বা পরে কি কথা বা কি ঘটনা ঘটেছে বা ঘটেছিল বা ঘটনার সত্যতা কতখানি। অথবা কার কি স্বার্থ জড়ানো। একটু পর্যালোচনা করুন মস্তিষ্ক দিয়ে, বুদ্ধিমত্তা দিয়ে, নিজের অর্জিত শিক্ষা দিয়ে।

যদি আপনার কাছে মনে হয় এতো কিছু করার আপনার এতো সময় কোথায় , তাহলে এতো কষ্ট করে সময় অপচয় করে শেয়ার বাটনটি ক্লিক করা ও কি উচিত হবে আপনার?

নিজের বিবেককে একবার প্রশ্ন করুন!

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)