ফাইনালের আশাবাদী মাশরাফি

Print Friendly, PDF & Email

নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে ফাইনালে খেলার আশা বাঁচিয়ে রেখেছে বাংলাদেশ। গতকাল সোমবার ভারতের বিপক্ষে জিততে পারেনি শ্রীলঙ্কা। আর এতে যেনো আশার পালে হাওয়া লাগা।দলের সাথে তিনি নেই কিন্তু মনটা ঠিকই পড়ে আছে শ্রীলঙ্কায়। হারতে থাকা বাংলাদেশ দল নুইয়ে পড়েছিল। দল আর ভক্তদের হতাশা দেখে মাশরাফি বলেছিলেন, খেলোয়াড়দের উপর চাপ আর প্রত্যাশা কমান। দেখবেন সব আমাদের পক্ষে আসবে।

গত বছরের ৬ এপ্রিল কলম্বোয় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টি-টোয়েন্টি থেকে অবসরে যান দেশের সবচেয়ে সফল এই অধিনায়ক। সেদিন লঙ্কানদের হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর সাকিব-মাহমুদুল্লার নেতৃত্বে ৫ ম্যাচ খেললেও কোনও জয় পায়নি টাইগাররা। যার মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকায় দুটি, ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুটি এবং চলতি নিদাহাস কাপে ভারতের বিপক্ষে একটি।

মানসিক চাপে হতাশাগ্রস্থ বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা জানে একটা জয় কতটা প্রয়োজন। ঠিক সেই মুহূর্তেই স্বাগতীক শ্রীলঙ্কাকেই হারিয়ে আবার ট্র্যাকে ফিরলো বাংলাদেশ। সেটিও আবার রেকর্ড বইয়ে জায়গা করে।মাশরাফি অবশ্য রেকর্ড নিয়ে এতটা না ভাবলেও জয়টা দেখছেন বড় করে। এই জয় গোটা দলকে বদলে দিয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের এই জয়টা খুবই দরকার ছিল। সবাই যেমন সমালোচনায় মেতে উঠেছিল এই জয় সব কিছুকে থামিয়ে দিয়েছে। তাই জয়টা আশা করেছিলাম কিন্ত এত ভালোভাবে জিতবো আশা করিনি।মাশরাফি ব্যাটসম্যানদের প্রশংসা করে বলেন, শুরুতে তামিম-লিটন যেভাবে খেলেছে সেভাবেই খেলেছে মুশফিক-সৌম্যরা। ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে বলেই এতো বড় স্কোর তাড়া করা সম্ভব হয়েছে।সাবেক অধিনায়ক আশাবাদী বাংলাদেশ দলের ফাইনাল খেলা নিয়েও। তিনি বলেন, ছেলেরা এই জয়ে যে সাহস পেয়েছে এই সাহস ধরে রাখতে পারলে আগামী ম্যাচগুলাও ভালো করা সম্ভব। ছেলেরা প্রস্তুত আছে।