উড়োজাহাজটির ৪৩ যাত্রী বাংলাদেশি: বিমানমন্ত্রী

Print Friendly, PDF & Email

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী শাহজাহান কামাল জানিয়েছেন, নেপালের কাঠমান্ডুতে বিধ্বস্ত হওয়া উড়োজাহাজটিতে ৪৩ জন বাংলাদেশি যাত্রী ছিলেন। এঁদের মধ্যে নেপালে বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তারা ১৪ জন যাত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন। আর উড়োজাহাজের পাইলট আবিদ হাসান জীবিত রয়েছেন। সহকারী পাইলট এখন আছেন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে।

সোমবার সিভিল অ্যাভিয়েশন কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান বিমানমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, উড়োজাহাজটিতে মোট ৬‍৭ জন, দুজন পাইলট ও দুজন কেবিন ক্রু ছিলেন। যাত্রীদের মধ্যে ৪৩ জন বাংলাদেশি, ২২ জন নেপালি, মালদ্বীপের একজন এবং চীনের একজন ছিলেন। কতজন নিহত হয়েছেন, তা এখনো নিশ্চিত নয়।

বিমানমন্ত্রী জানান, উড়োজাহাজের ব্ল্যাক বক্স উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরে আরও তথ্য জানাবে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (সিভিল এভিয়েশন)।

বিমানমন্ত্রী জানিয়েছেন, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের গঠিত তদন্ত কমিটির সঙ্গে তিনি আগামীকাল (মঙ্গলবার) নেপালে যেতে পারেন। বিষয়টি নির্ভর করছে কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর খুলে দেওয়ার ওপর।

সোমবার ইউএস বাংলার উড়োজাহাজটি ঢাকা থেকে ৭১ জন আরোহী নিয়ে নেপালের উদ্দেশে যাত্রা করে। রয়টার্স জানিয়েছে, উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়ে অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনার পর নেপালের একমাত্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরটি সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।