নোয়াখালী বিভাগ বাস্তবায়নের যৌক্তিকতা : আব্দুল্লাহ আল মামুন

N

রাজধানী ঢাকা থেকে মাত্র ৪০ কিলোমিটার দূরে কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা অবস্থিত। ৮০ কিলোমিটার দূরে কুমিল্লা জেলা শহর। সড়কপথে মাত্র ১ ঘন্টায় কুমিল্লায় পৌঁছানো যায় বিধায় রাজধানী শহরের এতো কাছের জেলা কুমিল্লাকে বিভাগ করার কোন যৌক্তিগতা নেই বলে বিশেষজ্ঞগণ মনে করেন।
তাছাড়া কুমিল্লা জেলার চকবাজার থেকে মাত্র ৬ কিলোমিটার পূর্বে বিবিরবাজার ও কটক বাজার। এর পরেই ভারত সীমান্ত তথা ত্রিপুরার সোনামুড়া বাজার, ফলে ভৌগোলিক দিক থেকে কৌশলগত কারনেও কুমিল্লাকে বিভাগ করা যায় না।

o

বৃহত্তর নোয়াখালী এবং কুমিল্লার মধ্যে সবচেয়ে বড় জেলা হচ্ছে নোয়াখালী, যার আয়তন প্রায় ৪ হাজার ২০২ বর্গ কিলোমিটার। যা কুমিল্লা জেলার চেয়ে আয়তনে প্রায় ১ হাজার বর্গ কিলোমিটার বড়। তৃণমুলের মানুষের মতায়নের জন্য এবং জনমুখী প্রশাসনের জন্য রাজধানী ঢাকা থেকে প্রায় ১৭০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত জেলা নোয়াখালীকে বিভাগ করা অত্যন্ত যুক্তিসংগত ।

2

নোয়াখালী, ফেনী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সমূহকে নিয়ে নোয়াখালী বিভাগ গঠন করা হলে রাজধানী ঢাকা এবং চট্টগ্রাম এর উপর অতিরিক্ত জনসংখ্যার চাপ কমবে। আর তাই রাজধানী ঢাকা ও চট্টগ্রাম এর মধ্যবর্তী স্থানে অবসস্থিত জেলা নোয়াখালীকে বিভাগ গঠন এখন সময়ের দাবী।
বৃহত্তর নোয়াখালী এবং বৃহত্তর কুমিল্লার ৬ জেলা নিয়ে নোয়াখালী বিভাগ গঠন হলে এর আয়তন হবে ১৩ হাজার ৩০৩ বর্গ কিলোমিটার, এবং জনসংখ্যা হবে প্রায় ১ কোটি ৭৫ লাখ, যা আয়তন এবং জনসংখ্যায় সিলেট, বরিশাল এবং রংপুর বিভাগের চাইতেও বড়।

i
নোয়াখালী, ফেনী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, কুমিল্লার মধ্যমস্থান হিসেবে নোয়াখালীর চৌমুহনী চৌরাস্তা তথা বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন চত্বর এর চারপাশে চমৎকার লোকেশানে নোয়াখালী বিভাগের হেড কোয়ার্টার স্থাপন হতে পারে। এই স্থানে অনেক সরকারি খাস জমিও রয়েছে। যেখানে নোয়াখালী বিভাগ গঠন হলে বিভাগীয় কমিশনার ও ডিআইজি’র কার্যালয় সহ অন্যান্য বিভাগীয় অফিস স্থাপন করা যাবে অনায়াসে। এ নিয়ে দফায় দফায় নোয়াখালী বিভাগের দাবীতে লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, ফেনীসহ বেশ কয়েকটি জেলায় মানবন্ধন ও স্মারকলিপিসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়।

7 তাই দেশরত্ম মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা’র নিকট নোয়াখালীবাসীর প্রাণের দাবী অনতিবিলম্বে নোয়াখালী বিভাগ বাস্তবায়ন করা।

লেখক : আব্দুল্লাহ আল মামুন
কলামিষ্ট ও উন্নয়ন গবেষণক
মাইজদি, নোয়াখালী।