লক্ষ্মীপুরে মৎস্য চাষীকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালেন জনপ্রতিনিধি

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে মৎস্য ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম সুমন ও তার পরিবারের ৩ সদস্যকে বেদড়ক পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি সদস্য ফারুক হোসেনের বিরুদ্ধে। স্থানীয়রা গুরুতর আহত সুমন ও তার স্ত্রী শান্তা ইসলামকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছেন। অপর আহত মন্তাজ উদ্দিন ও আমেনা বেগমকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
এ ঘটনায় শুক্রবার (১৩ মে) সকালে রামগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার। এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের নুনিয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত ফারুক হোসেন ইছাপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও একই এলাকার বাসিন্দা মৃত- আব্দুল মান্নানের ছেলে।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাইফুল ইসলাম সুমন জানান, দীর্ঘ দিন থেকে ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন প্রকাশে সিঙ্গার গংদের সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। বৃহস্পতিবার সকালে ফারুক মেম্বারের নেতৃত্বে ফরহাদ, আরমানসহ ৬/৭ জন মৎস্য চাষী সুমনের বসতঘর জোর পূর্বক দখল করতে যান। এসময় ওই মৎস্য চাষী বাধা দিলে তাকে ও তার পরিবারের ৩ সদস্যকে বেড়ক মারধর করেন। এতে তার (সুমন) বিভিন্ন স্থানে রক্তাত্ত জখম হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে।
ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন দাবি করেন, তিনি ঘটনাস্থলে ছিলেন না। তার ভাই-বোনদের সাথে সুমনের কথা কাটাকাটি হয়েছে। এখন তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে বলে জানান তিনি।
রামগঞ্জ থানার ওসি এমদাদুল হক জানান, একটি অভিযোগ পেয়েছি। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান ওসি।

Print Friendly, PDF & Email