স্বামীর হাতেই খুন হয়েছেন নায়িকা শিমু’

চিত্রনায়িকা রাইমা ইসলাম শিমুর (৪৫) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় তার বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তার হত্যা নিয়ে দেখা দিয়েছিল এক রহস্য। তবে সেই রহস্যের জট খুলতে বেশি সময় লাগেনি। স্বামীর হাতেই খুন হয়েছেন এই নায়িকা।

ধারণা করা হচ্ছে, বাসা থেকে হত্যা করে কেরানীগঞ্জ নিয়ে শিমুর মহদেহ ফেলে দেওয়া হয়। যার প্রমাণ মিলে গাড়িতে লেগে থাকা রক্তের দাগ দেখে। এরই মধ্যে শিমুর স্বামীসহ আরও একজন গ্রেপ্তার হয়ে কেরানীগঞ্জ থানায় আটক আছেন। ইতোমধ্যে শিমুর ভাই বাদী হয়ে একটি মামলাও করেছেন।

শিমুর বড় ভাই বলেন, শিমু ও তার স্বামীর মাঝে প্রায়ই ঝগড়া হতো। সেই ঝগড়ার সূত্র ধরেই হয়তো তাকে হত্যা করা হয়েছে।

এদিকে, শিমু হত্যার পর বেশ কয়েকজন চলচ্চিত্রকর্মী নায়ক জায়েদ খানের দিকে আঙ্গুল তোলেন। কিন্তু শিমুর হত্যাকারী গ্রেপ্তার হওয়ার সাথে সাথেই তাদের অভিযোগ মিথ্যা বলে প্রমাণিত হলো।

উল্লেখ্য, ১৯৯৮ সালে কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘বর্তমান’ সিনেমা দিয়ে রুপালি পর্দায় তার অভিষেক হয়। একে একে অভিনয় করেছেন ৫০ টিরও বেশি নাটকে। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজক হিসেবেও দর্শকরা তাকে পর্দায় পেয়েছে। দেখতে দেখতে রাইমা ইসলাম শিমু চলচ্চিত্র ও নাটকের ক্যারিয়ার দুই দশকেরও বেশি সময় পার করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email