টেস্টেও পাকিস্তানের কাছে হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ

ঢাকা : টি-টোয়েন্টির পর টেস্টেও পাকিস্তানের কাছে হোয়াইওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ। মিরপুরে বৃষ্টির কারণে বল মাঠে গড়ায়নি দুই দিন। প্রথম দিনও খেলা হয়েছে ৫৭ ওভার। এপর ৩০০ রানের টার্গেট দেয় পাকিস্তান। ৮৭ বাংলাদেশ অলআউট হলে ফলোঅনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেও চরম বিপর্যয়ে পড়ে বাংলোদেশ।

দ্বিতীয় ইনিংসে শুরু হয় অভিষিক্ত জয়ে চার মারার মাধ্যমে। একই সঙ্গে নিজের অভিষেকের রানটি করে চার দিয়ে। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে। প্রথম ইনিংসে কোন রানই করতে পারেননি জয়।

রাঙ্গাতে পারেননি অভিষেক। দলীয় ১২ রানের মাথায় হাসান আলীর বলে ৬ রানেই ফিরতে হলো জয়কে। এরপর ফিরেন ২ রান করে আফ্রিদির বলে ফিরেন সাদমান। ফের হাসান আলীর আক্রমন। ৭ রান করা অধিনায়ক মুমিনুলকে ফেরান তিনি। প্রথম ইনিংসে ৩০ রান শান্তকে ৬ রানে ফেরান আফ্রিদি।

তবে মুশফিক-লিটন দলে বিপর্যয় থেকে নিয়ে গিয়েছেন বহুদূর। কিন্তু ৪৫ রানে বিদায় নেন লিটন। এরপর ২ রানের জন্য অর্ধশতক থেকে বঞ্চিত হন মুশফিক। এদিকে দ্রততম টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে নতুন মাইলফলক স্পর্শ করেছেন সাকিব আল হাসান। তিনি দ্রুত ৪০০০ ও ২০০ উইকেট নেওয়া রেকর্ড স্পর্শ করেছেন। ৫৯ টেস্টে ৪০২১ ও ২১৫ উইকেট নিয়ে এই রেকর্ড স্পর্শ করেছেন।

এরই মধ্যে আরও একটি হাফসেঞ্চুরি করেছেন সাকিব আল হাসান। ৯০ বলে ২৬ তম হাফসেঞ্চুরিটি তুলে নিলেন তিনি। হোয়াইওয়াশ থেকে দলকে বাঁচাতে প্রাণপন লড়েছেন সাকিব। কিন্তু ৬৩ রানে সাজিদের বলে ফিরে গেলে দলের সব আশা শেষ হয়ে যায়। এর আগে ১৪ রান করা মেহেদি মিরাজকে এলবির ফাঁদে ফেলেন বাবর আজম। কোন রান না করেই ফেরেন খালেদ আহমেদ।

শেষ জুটি প্রাণপণ চেস্টা করে কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। ৫ রান করে ফিরে সাদিজের বলে আউট হরে টেস্টে হোয়াইটওয়াশ হয় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টেস্টে এক ইনিংস ও ৮ রানে হারে বাংলাদেশ।

এর আগে প্রথম ইনিংসে শেষ দিনের ব্যাটিং শুরু করে বাংলাদেশ। কোন রান যোগ না করতেই সাজিদের বলে ফিরে যান তাইজুল। ৭৭ রানের মাথায় আফ্রিদির বলে বল্ড হয়ে ফিরে যান খালিদ আহমেদ।

তবে সাকিব চেস্টা করেছিলেন কিছুটা ঘুরে দাঁড়াতে। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। ১১ রান যোগ করতেই শেষ ব্যাটার হিসেবে আউট হন সাকিব। ৩৫ রান করে সাজিদের বলে আউট হন সাকিব। এতে ৮৭ রানে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস শেষ হয়ে যায়। ফলোআনও এরাতে পারলো না বাংলাদেশ। পাকিস্তানের সাজিদ খান একাই নেন ৮ উইকেট।

এর আগে বাংলাদেশ ৭৬ রানে ৭ উইকেট দিন শেষ করে। এতে ফলোঅন এড়ানো নিয়ে শঙ্কা জাগার পাশাপাশি শেষ দিন হাতে রেখে হারের শঙ্কাও কাজ করছে। ফলো-অন এড়াতে বাংলাদেশের চাই আরো ২৫ রান। বাংলাদেশ পিছিয়ে ২২৪ রানে।

২ উইকেটে ১৮৮ রান নিয়ে বৃষ্টিবিঘ্নিত টেস্টের চতুর্থ দিন শুরু করে সফরকারীরা। দুই অপরাজিত ব্যাটার বাবর আজম ৭৬ ও আজহার আলী ৫৬ রান করে বিদায় নিলেও মোহাম্মদ রিজওয়ানের অপরাজিত ৫৩ ও ফাওয়াদ আলমের অপরাজিত ৫০ রানের ইনিংসে ভর করে ৪ উইকেটে ৩০০ রান নিয়ে ইনিংস ঘোষণা করে পাকিস্তান।

Print Friendly, PDF & Email