লক্ষ্মীপুরে বৃদ্ধ চা দোকানীর রহস্যজনক মৃত্যু..!

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে দেলোয়ার হোসেন নামের (৬০) এক বৃদ্ধ চা দোকানীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে! বুধবার (৮ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার সময় পুলিশ নিহতের বসতঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। সকাল ৮ টার সময় উপজেলার বামনীর ইউনিয়নের উত্তর বামনী গ্রামের পাঠান বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহত দেলোয়ার হোসেন ওই গ্রামের ফজর আলী পাঠান (১০০) ও হায়াতের নেছা (৯০) দম্পত্তির ৮ সন্তানের মধ্য ২য় ছেলে সে। তার অন্ধ স্ত্রীসহ এক প্রবাসী ছেলে ও এক বিবাহিত মেয়ে রয়েছে। তিনি-স্থানীয় চা দোকানদার ছিলেন।

নিহতের বড় ভাই প্রবাস ফেরত মোঃ মুসা মিয়া (৬৮) বলেন, বুধবার চচ ফজরের নামাজের পর পরিবাের কাছে জানতে পারেন দেলোয়ার নীজ ঘরের আড়ার সাথে গলায় গামছা পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। তা স্ত্রী ও সন্তানরা কেউ ছিলো না। তার পা মাটি স্পর্শ ছিলো। তাছাড়া সে গ্রামের কয়েকজন ও বিভিন্ন এনজিওর কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা রিন নিয়ে ছেলেকে বিদেশ পাঠায় ও নীজে চা দোকান দিয়েছেন। পাওনাদারদের চাপে হয়তো আত্মহত্যা করতে পারে বলে আমার ধারনা। গ্রামের কারো সাথে কোন ঝগড়া বা মনোমালিন্য ছিলোনা। এমনিতেই দেরোয়ার একজন কর্কট ও বদমেজাজি লোক ছিলো। বুধবারসকাল ১০টার দিকে থানার পুলিশ এসে মরদেহ থানায় নিয়ে যায়।

রায়পুর থানার এসআই জাহাঙ্গির বলেন, বৃদ্ধ চা দোকানদার দেরোয়ার হোসেনের মরদেহ বুধবার সকাল ১০টার সময় উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর, তার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা সম্ভব হবে। এঘটনায় নিহতের একমাত্র মেয়ে পলি আক্তার বাদি হয়ে ইউডি মামলা করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email