হামাসকে ব্রিটিশ সরকার ‘সন্ত্রাসী’র তকমা দিতেই ইসরায়েলের উল্লাস

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন- হামাসকে ‘সন্ত্রাসী গোষ্ঠী’ বলে ঘোষণা করেছে ব্রিটিশ সরকার। শুক্রবার লন্ডনে এই ঘোষণা দিয়েছেন ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিতি প্যাটেল। তিনি বর্ণবাদী ইসরায়েলের সঙ্গে সুর মিলিয়ে বলেন, অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র হাতে থাকার পাশাপাশি সন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণ দেয়ার কারণে হামাসের সব ধরনের তৎপরতা পুরোপুরি নিষিদ্ধ করার নির্দেশ দিয়েছি।

এতে ইহুদিবাদী ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেত ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়ায়ির লাপিদ তাৎক্ষণিকভাবে ব্রিটিশ সরকারের এ ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছেন। এক টুইটার বার্তায় বেনেত লিখেছেন, হামাস একটি উগ্র ইসলামি সংগঠন যা ইসরাইলকে লক্ষ্য করে হামলা চালায় এবং ইসরায়েলকে ধ্বংস করতে চায়। হামাসকে সন্ত্রাসী ঘোষণা করার জন্য আমি আমার বন্ধু বরিস জনসনকে (ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী) ধন্যবাদ জানাই।

টুইট বার্তায় ইসরায়েল পররাষ্ট্রমন্ত্রী লাপিদ লিখেছেন, লন্ডনের পক্ষ থেকে হামাসকে সন্ত্রাসী ঘোষণা ইসরায়েলসহ মিত্র দেশগুলোর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ধারাবাহিক প্রচেষ্টার ফসল। এর ফলে ব্রিটেনের সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পর্ক আরো শক্তিশালী হবে।

এর আগে, ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এক বিবৃতিতে বলেছেন, তার নির্দেশে ব্রিটেনে হামাসের যেকোনো ধরনের তৎপরতা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র হাতে থাকার পাশাপাশি সন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণ দেয়ার মতো এমন সব উল্লেখযোগ্য উপকরণ হামাসের কাছে রয়েছে যার কারণে এটিকে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী বলে অভিহিত করা যায়। সূত্র : পার্সটুডে।

Print Friendly, PDF & Email