লক্ষ্মীপুরে মসজিদের জমি দখল করে মাদরাসা ভবন নির্মাণের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুরের এনায়েতপুর জামে মসজিদের জমি দখল করে মাদরাসা ভবন নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে পাশ্ববর্তী একটি মাদরাসা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকালে লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের সামনে মুতাওয়াল্লী, মসজিদ কমিটি ও এলাকাবাসীর ব্যানারে মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

এ সময় তারা মসজিদের জমি জোরপূর্বক দখল করে মাদরাসা ভবন নির্মাণের প্রতিবাদ জানান।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, মসজিদ কমিটির সভাপতি আবুল হাসানাত, সহ-সভাপতি আবুল কালাম, সাধারণ সম্পাদক আক্তার হোসাইন, খতিব আবদুল আখেরসহ স্থানীয় লোকজন।

তারা জানান, সদর উপজেলার লাহারকান্দি ইউনিয়নের আবিরনগর (এনায়েতপুর) জামে মসজিদের নামে ১২২ শতাংশ ওয়াকফকৃত সম্পত্তি রয়েছে। ওয়াকফকৃত সম্পত্তির ১৪ শতাংশ জমি আবিরনগর মাহমদিয়া দাখিল মাদরাসার জন্য জোরপূর্বক দখল করে একটি ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়েছে। ওই জমি নিয়ে মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে মাদরাসা কমিটির বিরুদ্ধে সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে স্থায়ী নিষেধাজ্ঞার পিটিশন ও অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আবেদন করা হয়। এতে বিজ্ঞ আদালত বিবাদী পক্ষকে কেন অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে না মর্মে রুল জারি করেন।

তারা অভিযোগ করেন, উক্ত রুল নিষ্পত্তির শুনানিকালে সেই অসাধু চক্রটি প্রভাবশালী লোকের সহযোগিতায় বেআইনিভাবে কাউন্টার একটি মনগড়া মসজিদ কমিটি গঠন করে মসজিদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট দুটি মামলা পরিচালনা করবেনা মর্মে আদালতে একটি আবেদন দাখিল করেন। আদালতের রুল থাকা সত্ত্বেও মাদারাসা কমিটির লোকজন মসজিদের জমিতে ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করেন।
মসজিদের মুতাওয়াল্লী আবদুল কাদের বলেন, বিগত আরএস জরিপের সময় স্থানীয় একটি চক্র মসজিদের ওয়াকফ দলিল গোপন করে সিএস এবং এসএ জরিপে মসজিদের নামে রেকর্ডকৃত ২৫ শতাংশ জমি থেকে ১৪ শতাংশ জমি মাদরাসার নামে রেকর্ডভূক্ত করে নেয়। মাদরাসা কমিটি মসজিদের ঈদগাহ মাঠ দখল করে একটি ভবন নির্মাণ করতে উঠেপড়ে লেগেছে। আমরা মুতাওয়াল্লী পরিবার বাঁধা প্রদান করলে আমাদেরকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। তারা অন্যায়ভাবে মসজিদের জমিতে ভবন নির্মাণ শুরু করেছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। মসজিদের জমি রক্ষায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন মুতাওয়াল্লী আবদুল কাদের।

Print Friendly, PDF & Email