কাবুল বিমানবন্দরে হামলার আশঙ্কা, অপেক্ষায় ১০ হাজার মানুষ

ঢাকা : আফগানিস্তানের কাবুলে বিমানবন্দরে সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কা করছে যুক্তরাষ্ট্রসহ কয়েকটি দেশ। এমন পরিস্থিতিতে তাদের নাগরিকদের বন্দর এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছে তারা। বিমানবন্দরটিতে উচ্চ সন্ত্রাসী হামলার সতর্কতা জারির পর যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর মেজর জেনারেল উইলিয়াম টেলর এক সংবাদ বিবৃতিতে এ তথ্য জানান।

এদিকে আফগানিস্তান ছাড়তে ১০ হাজার মানুষ কাবুল বিমানবন্দরে অপেক্ষা করছে। পেন্টাগন জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় আফগানিস্তান থেকে ১৯ হাজার মানুষকে এবং ১৪ আগস্ট থেকে মোট ৮০ হাজারের বেশি বিদেশি ও আফগান নাগরিককে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

এদিকে ব্রিটিশ ও অস্ট্রেলিয়ান সরকার সন্ত্রাসী হামলার উচ্চ ঝুঁকি সম্পর্কে সতর্ক করায় যুক্তরাষ্ট্র কাবুল বিমানবন্দরে প্রবেশের চেষ্টা করা মানুষকে সেখান থেকে চলে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কাবুল বিমানবন্দরে হামালার আশঙ্কা জানিয়ে সেখানে কাউকে যেতে নিষেধ করেছে। অন্যদিকে ব্রিটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় একই উপদেশ দিয়ে বলেছে, নিরাপদে আফগানিস্তান ছাড়তে হলে খুব দ্রুত ব্যবস্থা নিতে হবে।

তবে তালেবান আবারও যুক্তরাষ্ট্রকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে। ৩১ আগস্টের মধ্যে নির্ধারিত সময়ের আগে সেনাদের সরানোর কথা বলে তারা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও আগামী ৩১ আগস্টের মধ্যে কার্যক্রম শেষ করতে চান। তবে এটি নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন যুক্তরাষ্ট্রের মিত্ররা।

লোকজনকে কাবুল বিমানবন্দর থেকে সরিয়ে নেওয়ার সময় বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে আশপাশের এলাকা নিয়ন্ত্রণে নেয় তালেবান আর বিমানবন্দরের ভেতরে অবস্থান করছে মার্কিন সেনারা।

Print Friendly, PDF & Email