রায়পুরে আইনশৃঙ্খলা ও সমন্বয় সভায় সাংসদের ক্ষোভ

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর)-প্রতিনিধি :
লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলা মাসিক আইনশৃঙ্খলা ও সমন্বয় সভা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার (২৩ আগষ্ট) সকাল ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ৩টা পর্যন্ত এ সভা হয়। সভায় উপজেলার গত এক মাসের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, মামলা, গ্রেফতারী পরোয়ানা ও উন্নয়ন বিষয়ে আলোচনা করা হয়। এসময় কয়েকজন কর্মকর্তা অনুপুস্থিত ও অনিয়ম-অব্যবস্থপনা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর) আসনের সাংসদ এডঃ নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন।
আইনশৃঙ্খলা সভায় প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ মাহবুবুল আলম মিন্টু মেঘনা নদির পাড়ে অবৈধ গড়ে উঠা মাছঘাটে জেলেদের কাছ থেকে টাকা আদায়, সিএনজি চলাচলে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি, রাস্তা ও ফুটপাথ দখল করে ভ্যানগাড়ি, অবৈধ ড্রেজার মেশিন, লাইসেন্সবিহিন মোটরসাইকেল চালনা, বাজারে টোলের নামে হয়রানি, ঝুঁকিপূর্ণ গাছ কাটা এবং ১৬টি সরকারি দপ্তরের প্রায় ২’শ কর্মকর্তার পদ শুণ্য পুরন করার বিষয়ে আলোচনা উত্থাপন করেন।
মুক্তিযোদ্ধা সফিউল্যা বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণে আমাদের অবহেলা করা হয়েছে। কমপ্লেক্সের সম্মুখের অবৈধ স্থাপনা সরানোর বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।
সাবেক পৌর মেয়র হাজী ইসমাইল খোকন ও ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মারুফ বিন জাকারিয়া হাসপাতালের চিকিৎসা ব্যবস্থা তদারকিতে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার উদাসীনতার চিত্র তুলে ধরেন। এ কর্মকর্তা প্রতিদিন সরকারি গাড়ি নিয়ে অন্য উপজেলায় চলে যান বলে অভিযোগ উত্থাপন করেন।
বৈঠকগুলোতে মুখ্য উপদেষ্টা হিসেবে অংশগ্রহণ করেন সাংসদ অ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন। তিনি বলেন, বৈঠকে আলোচিত সকল বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণে ও ভূমি সংক্রান্ত বিষয়ে কোনো আপোষ করা হবে না। স্বচ্ছভাবে কাজ করা কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের যেমন মূল্যায়ন করা হবে তেমনি যারা এর বিপরীত হবেন তাদেরকে ছাড় দেওয়া হবে না।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবরীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন রায়পুৃর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মামুনুর রশীদ, পৌর মেয়র গিয়াস উদ্দিন রুবেল, আরএমও ডাক্তার বাহারুল আলম প্রমুখ।
Print Friendly, PDF & Email