শীর্ষ সংবাদে খবর প্রকাশের পর লক্ষ্মীপুরে পঙ্গু মামুন পেল ইউএনও’র ভালোবাসা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার শিকার হয়ে পঙ্গুত্ব জীবন-যাপন করেছেন মোঃ মামুনুর রশিদ। বর্তমানে তিনি ভিক্ষা করে সংসার চালান। শীর্ষ সংবাদ এমন খবর প্রকাশের পর, বিষয়টি নজরে আসে লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক মোঃ আনোয়ার হোছাইন আকন্দ ও সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ মাসুমের।

রবিবার (২২ আগস্ট) সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুম তাঁর কার্যালয় পঙ্গুত্ব মামুনকে ডেকে এনে সেই ২১শে গ্রেনেড হামলার বর্ণনা শুনেন। তারপর মামুনের হাতে খাদ্যসামগ্রীর ব্যাগ তুলে দেন ইউএনও।

মামুন সদর উপজেলা লাহারকান্দি ইউনিয়নের আঠিয়াতলী গ্রামের বাসিন্দা। ২০০৪ সালে ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আয়োজিত আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী শোভাযাত্রা পুলিশ-সদস্যদের নিয়ে সেইখানে দায়িত্বরত ছিলেন।তিনি পেশায় একজন গাড়ি চালক। সরকারি চাকুরী না হলেও তিনি বেসরকারিভাবে দায়িত্বরত ছিলেন গ্রেনেড হামলার দিন পুলিশ সদস্যদের নিয়ে।

দীর্ঘ বছর ধরে মামুন পঙ্গুত্ব জীবন-যাপন করে যাচ্ছেন। স্ত্রী ও সন্তানদের মুখে একমুঠো খাবার তুলে দিতে প্রতিদিন ভিক্ষার ঝুলি হাতে নিয়ে মানুষের ধারে-ধারে যেত হয়।

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ মাসুম বলেন, জেলা প্রশাসকের নির্দেশে সকালে পঙ্গুত্ব মামুনকে ডাকা হয়। বেশকিছুক্ষণ তার মুখে ২১শে সেই বর্বরোচিত বোমা হামলার কথা শুনা হয়। সেইদিনের দুর্বিষহ স্মৃতি বলে কান্নায় ভেঙে পড়েন মামুন। পরে তাকে সরাসরি জেলা প্রশাসকের সাথে সাক্ষাতকার করে দেওয়া হয়। সেই জেনো ভবিষ্যৎ ভিক্ষা না করে। সেদিকে লক্ষ্য রেখে পূর্ণবাসন ও চলার মত ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে শীঘ্রই।

Print Friendly, PDF & Email