লক্ষ্মীপুরে আটককৃত নৌকা ফেরত পেয়ে খুশি ৮০ জেলে পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ইলিশের প্রজণণ মৌসুমে দুই মাস (মার্চ ও এপ্রিল) নিষেধাজ্ঞার সময় মেঘনায় অভিযান চালিয়ে ৮০টি নৌকাসহ ইঞ্জিন আটক করে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর-কোষ্টগার্ড। বৃহস্পতিবার (৩ জুন) দুপুরে মেঘনার পাড়ে আ’লীগ নেতা সাইজুদ্দিন মোল্লার মাছঘাটে সেই নৌকাগুলো নিলামে দেয় ভাম্যমান আদালত। এতে নৌতাগুলো পেয়ে মহাখুশি হয়েছে জেলেরা।

উজেলা মৎস্য কর্মকর্তা জানালেন, ১লা মে থেকে নদীতে মাছ ধরা শুরু হলেও আগামী আরো দু’ মাস চলবে জাটকা সংরক্ষণ অভিযান। এসময় নদীতে জেলেদের ইলিশ ধরার উপযোগী জাল ব্যাহারের জন্য পরামর্শ দেন তিনি।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন বলেন. রামগতি চর আলেকজান্ডার থেকে রায়পুর ও চাঁদপুরের ষাটনল পর্যন্ত মেঘনা নদীর একশ কিলোমিটার এলাকায় জাটকা সংরক্ষণের লক্ষ্যে মার্চ-এপ্রিল এ-দুই মাস সকল ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ ছিল। এ সময় ৮০টি নৌকা আটক করা হয়। প্রায় ৮ লাখ টাকা জরিমানা গুনতে হয় তাদের। বৃহস্পতিবার ২৫ জনকে দেয়া হয়েছে ও রোববার অন্যদেরকে নৌকাগুলো দেয়া হবে। এতে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে জেলে পরিবার ও মৎস্য ব্যবসায়ীদের মাঝে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাবরীন চৌধুরী, সহকারি কমিশনার (ভূমি) আক্তার জাহান সাথী, সিনিয়র মৎস কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন, দক্ষিন-চর আবাবিল ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ উল্যা, উত্তর চরবংশী ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন হাওলাদারসহ কোষ্টগার্ডের কর্মকর্তা ও সাংবাদিকগন প্রমুখ।

এছাড়াও নিষিদ্ধের সময় জেলেদের ৪০ কেজি হারে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন সরকার। ১০ ইঞ্চির নিচে জাটকা শিকার করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান এ কর্মকর্তা।

Print Friendly, PDF & Email