ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নিলেন ক্রিকেটাররা

ঢাকা : আগামী সোমবার (১২ এপ্রিল) বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দুই ম্যাচের সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কা যাবে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। এর আগে করোনাভাইরাসের কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে নিলেন ক্রিকেটাররা।

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit

শনিবার (১০ এপ্রিল) কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে নিলেন ক্রিকেটাররা।

রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালে আজ সবার আগে ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নেন সাবেক ক্রিকেটার শাহরিয়ার নাফীস। এরপর শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য ঘোষিত প্রাথমিক স্কোয়াডে থাকা মোহাম্মদ মিঠুন, তাইজুল ইসলাম, সাঈফ হাসান, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, শরিফুল ইসলাম, নাঈম হাসান, হাসান মাহমুদ, নাজমুল হোসেন শান্ত, তাসকিন আহমেদরা ভ্যাকসিন নেন।

এছাড়া সস্ত্রীক ভ্যাকসিন জাতীয় দলের দুই বাঁহাতি ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। গত ১৮ থেকে ২০ এপ্রিল কুর্মিটোলা হাসপাতালেই ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন ক্রিকেটাররা। তখনও সস্ত্রীক এই ভ্যাকসিন নিয়েছিলেন তামিম ও সৌম্য।

সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক প্রথম ডোজ নেয়ার ৮ থেকে ১২ সপ্তাহের মধ্যে নিতে হবে দ্বিতীয় ডোজ। ক্রিকেটারদের প্রথম ডোজ নেয়ার ৮ সপ্তাহ পূরণ হবে ১৬ এপ্রিল। কিন্তু তখন তারা থাকবেন শ্রীলঙ্কায়। তাই বিশেষ বিবেচনায় ৭ সপ্তাহ পূরণ হওয়ার পরই দ্বিতীয় ডোজ দেয়া হলো তাদের।

শুধু ক্রিকেটাররাই নয়, আজ করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছেন জাতীয় দলের কোচিং স্টাফরাও। শুধুমাত্র ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক ছুটিতে থাকায় আজ ভ্যাকসিন নেননি। দলের হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো শুক্রবার রাতে বাংলাদেশে এসেছেন। তিনিও আজ সকালে ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন।

এদিকে শুক্রবার শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য ২১ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। যেখানে জায়গা পেয়েছেন তিন অনভিষিক্ত পেসার মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, শরিফুল ইসলাম ও শহীদুল ইসলাম।

আগামী সোমবার শ্রীলঙ্কা যাওয়ার পর ১৫-১৬ এপ্রিল কোয়ারেন্টাইন অনুশীলন করবে বাংলাদেশ দল। এরপর ১৭-১৮ এপ্রিল হবে প্রস্তুতি ম্যাচ। যা শেষে ঘোষণা করা হবে মূল স্কোয়াড এবং তারা অনুশীলন করবে আরও দুইদিন।

অনুশীলন শেষে ২১ এপ্রিল শুরু হবে মূল সিরিজের লড়াই। পরে দ্বিতীয় ম্যাচ হবে ২৯ এপ্রিল থেকে। দুইটি ম্যাচই হবে ক্যান্ডির পাল্লেকেলে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে। সিরিজ শেষে ৪ মে দেশে ফিরে আসবে বাংলাদেশ দল।

শ্রীলঙ্কা সফরের প্রাথমিকৃু স্কোয়াড : মুমিনুল হক (অধিনায়ক), লিটন কুমার দাস, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহীম, তামিম ইকবাল খান, সাদমান ইসলাম, আবু জায়েদ রাহি, তাইজুল ইসলাম, নাজমুল হোসেন শান্ত, মেহেদি হাসান মিরাজ, নাঈম হাসান, তাসকিন আহমেদ, এবাদত হোসেন চৌধুরী, মোহাম্মদ সাইফ হাসান, ইয়াসির আলি রাব্বি, শরিফুল ইসলাম, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, শুভাগত হোম চৌধুরী, শহীদুল ইসলাম ও কাজী নুরুল হাসান সোহান।

Print Friendly, PDF & Email