গ্রেপ্তার হলেন মিস ওয়ার্ল্ড শ্রীলঙ্কা

ঢাকা : ‘মিস শ্রীলঙ্কা’ খেতাব অর্জন করা বিউটি কুইন পুষ্পিকা ডি সিলভার সঙ্গে অসদাচরণের জন্য গ্রেপ্তার হয়েছেন দুই আসর আগের বিজয়ী ক্যারোলিন জুরি। এসময় ঘটনায় জড়িত থাকা আরেক মডেল চোলা পদ্মেন্দ্রকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) তাকে গ্রেপ্তার করে দেশটির পুলিশ। শ্রীলঙ্কার সবচেয়ে বড় সুন্দরী প্রতিযোগিতার পুরস্কার মঞ্চে ২০১৯ সালের বিজয়ী হন তিনি। খবর বিবিসির।

খবরে বলা হয়, ক্যারোলিন জুরি এবং মডেল চোলা পদ্মেন্দ্রকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, রোববার পুরস্কার মঞ্চে ভুক্তভোগীকে আঘাত এবং অপরাধমূলক আচরণের। বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্থানীয় সময় রোববার রাতে আয়োজন হয় মিসেস শ্রীলংকা ২০২০-এর ফাইনাল। দেশসেরা সুন্দরীদের মধ্যে থেকে বাছাই হয়ে ফাইনালে আসেন তিন প্রতিযোগী। এরপর সেরাদের সেরা ঘোষিত হন পুষ্পিকা ডি সিলভা। তাকে সেরা সুন্দরীর মুকুট পরিয়ে দেন আয়োজকরা। কিন্তু বিপত্তির শুরু এরপরই। গতবারের চ্যাম্পিয়ন মিসেস শ্রীলঙ্কা ২০১৯, ক্যারোলিন জুরি এ সময় মঞ্চে উপস্থিত হয়ে কেড়ে নেন পুষ্পিকার মুকুট।

ক্যারোলিন দাবি করেন, ডি সিলভা আসলে ডিভোর্সপ্রাপ্ত। তিনি এই খেতাবের যোগ্য নন। জুরি বলেন, ‘ইতোমধ্যেই বিয়ে হয়েছে এবং বিচ্ছেদ হয়েছে এমন নারীরা নিয়ম অনুযায়ী এ খেতাব পেতে পারেন না। তাই আমি দ্বিতীয় স্থান অধিকারীকে মুকুটটি দিয়ে দিচ্ছি।’ এ কথা বলেই ডি সিলভার মাথা থেকে সোনালি মুকুট তুলে নিয়ে রানার-আপের মাথায় পরিয়ে দেন তিনি। অশ্রুসিক্ত চোখে মঞ্চ ছাড়েন ডি সিলভা। মঞ্চের বিশৃঙ্খলায় মাথায় চোট লাগে তার। এ ঘটনার পর আয়োজকরা নিশ্চিত হন যে, ডি সিলভার ডিভোর্স হয়নি। তিনি আলাদা হয়ে গেছেন, কিন্তু ডিভোর্স হয়নি। আয়োজকরা তার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। তাকে এক দিনের মধ্যেই বিজয়ীর খেতাব ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এক ফেসবুক পোস্টে ডি সিলভা বলেন, এই ঘটনায় তিনি মাথায় আঘাত পেয়েছেন। চিকিৎসার জন্য তাকে হাসপাতালে যেতে হয়েছে। মিসেস ডি সিলভা আরও জানান, তার সঙ্গে হওয়া ‘অযৌক্তিক ও অপমানজনক’ আচরণের জন্য তিনি আইনি ব্যবস্থা নেবেন। ‘মিসেস শ্রীলঙ্কা বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতা’ দেশটির সুন্দরী প্রতিযোগিতার মধ্যে অন্যতম। প্রতিযোগিতার ফাইনাল অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email