ঢাকাFriday , 12 August 2022
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন-বিচার
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া ও কৃষি
  7. খেলাধুলা
  8. গনমাধ্যাম
  9. চাকরি
  10. জাতীয়
  11. ধর্ম
  12. নির্বাচন
  13. প্রবাসের খবর
  14. প্রযুক্তি সংবাদ
  15. ফিচার

জুনিয়র পিটিয়ে বহিস্কার হলেন ৩ এসএসসি পরীক্ষার্থী

Link Copied!

শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে রায়পুর প্রিন্সিপাল কাজী ফারুকী স্কুল এন্ড কলেজের ৩ এসএসসি পরীক্ষার্থী সহ ৬ শিক্ষার্থীকে বহিস্কার করেছে প্রতিষ্ঠানটি। ভর্তি বাতিল করা হয় সাজিদ নামের আরেক ছাত্রের। বৃহস্পতিবার (১১ আগষ্ট) প্রতিবেদককে বিষয়টি নিশ্চিত করেন ওই কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল আমিন।

বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীরা হলেন- এসএসসি পরীক্ষার্থী সারোয়ার জামিন নাঈম, প্রিয়ন্ত চৌধুরী ও সায়েদুল ইসলাম প্রকাশ।
দশম শ্রেণীর ব্যবসা শাখার আদিয়াতুল আলম ভূবণ, ফাহিম হাসান ও মো. হামিদ। এছাড়া ভর্তি বাতিল করা হয়েছে মো. সাজিদের।

জানা গেছে, গত ২১ জুলাই দুপুরে ক্লাস শেষ করে বাড়ি ফিরছেন অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র ফাহাদ ইসলাম শাফিন। এসময় একই প্রতিষ্ঠানের এসএসসি পরীক্ষার্থী নাঈম ও তাঁর সহযোগীদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে শাফিনকে বেদম মারধর করে নাঈম ও আদিয়াতুল আলম ভূবনরা। এ ঘটনায় প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক মো. ইব্রাহীম ঘটনাটি শুনে বিচার করেন। বিচারে শাফিনকে দোষীসাব্যস্থ করে থাপ্পড় ও কান ধরে ওঠবস করান। তাতেও ক্ষান্ত হয়নি নাঈম ও তাঁর সহযোগীরা।

পরবর্তীতে স্কুলটির পাশ্ববর্তী পাটোয়ারীর রাস্তার মাথা নামক স্থানে নাঈমরা পুনরায় মারধর করে শাফিনকে। এতে মারাত্মক আহত হয় সে।

এদিকে এ ঘটনায় শাফিনের মা পারভীন আক্তার রায়পুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন নাঈমদের বিরুদ্ধে। পাশাপাশি কাজী ফারুকী স্কুল এন্ড কলেজেও অভিযোগ করেন।

এই অভিযোগের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠান তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। কমিটিতে বাংলা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক সাইফুল ইসলামকে আহ্বায়ক ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষক আসাদুল্লাহ এবং প্রতিষ্ঠানের ইনচার্জ জিয়া উদ্দিন শিপলুকে সদস্য করা হয়। কমিটির রিপোর্টের উপর ভিত্তি করেই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, নাঈম ও আদিয়াতুল আলম ভূবনরা উশৃংখল প্রকৃতির ছেলে। ভয়ে কখনো শিক্ষার্থীরা তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতো না। এবং কি শিক্ষকদের কাছেও বিচার দিতে ভয় পেতাম।

এ বিষয়ে শাফিনের মা পারভীন আক্তার প্রতিবেদককে বলেন, গত ২১ তারিখ অভিযুক্ত ওই শিক্ষার্থীরা আমার ছেলেকে দুই দফা মারধর করে মারাত্বক আহত করে। এ ঘটনায় সুষ্ঠ বিচারের জন্য থানায় ও স্কুলে অভিযোগ করেছি। আজ প্রতিষ্ঠানটি ৬ শিক্ষার্থীকে বহিস্কার ও একজনের ভর্তি বাতিল করে।

রায়পুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কমল দে বলেন, স্কুল ছাত্রকে মারধরের ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের ভিত্তিতে উভয় পক্ষকে ডেকে বিষয়টি সমাধান করা হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রিন্সিপাল কাজী ফারুকী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল আমিন বলেন, অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনার অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্তে অভিযোগ প্রমান পাওয়ায় ওই ছাত্রদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়। তবে এসএসসি পরীক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠানে আসতে পারবে না। তবে বোর্ড পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে।

তিনি আরও জানান, শাফিনের আম্মু থানায়ও একটি অভিযোগ করেছেন। সেখানেও অভিযোগটি প্রমানিত হওয়ায় নাঈম ও আদিয়াতুল আলম ভূবনসহ অভিযুক্তদের ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
ঢাকা অফিসঃ ১৬৭/১২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, মতিঝিল ঢাকা- ১০০০ আঞ্চলিক অফিস : উত্তর তেমুহনী সদর, লক্ষ্মীপুর ৩৭০০