ঢাকাWednesday , 31 August 2022
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন-বিচার
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া ও কৃষি
  7. খেলাধুলা
  8. গনমাধ্যাম
  9. চাকরি
  10. জাতীয়
  11. ধর্ম
  12. নির্বাচন
  13. প্রবাসের খবর
  14. ফিচার
  15. ফ্যাশন

উপ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসক শূন্য..! উপকূলবাসির দুর্ভোগ চরমে

Link Copied!

পানিতে পড়া তিন বছরের শিশু আরিয়ানকে নিয়ে ছুটে আসছেন মাহিনুর বেগম। তাঁর বাড়ি লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার মেঘনার ওপারে জালিয়ার চর গ্রামে। চিকিৎসার জন্য সম্প্রতি তিনি যান দক্ষিন চরআবাবিল ইউনিয়ন উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে। সেটি বন্ধ থাকায় তাঁর সব পরিশ্রম বৃথা।

ক্লান্ত ও পরিশ্রান্ত মাহিনুর হাঁফাতে হাঁফাতে এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘সরকার আঙ্গো-চরের গরিব মাইনষ্যের লাইগ্যা হাসপাতাল বানাইছে। নদী পার হইয়া কষ্ট কইরা আইয়া যদি ডাক্তর (চিকিৎসক) দেহাইতাম না হারি (পারি) তা অইলে এই হাসপাতাল (উপসাবাস্থ্যকেন্দ্র) বানাইয়া কী লাব (লাভ) অইলো। আঙ্গোর মতোন গরিব মানুষ কই যামু।’ এখন চিকিৎসা কোথায় করাবেন, এমন জবাবে তিনি বলেন, ‘আর কি করিয়াম। অষুধের দোয়ানতন (ফার্মেসি) অষুধ লই খাইয়াম। আর কবিরাজের তেল ও পানি পড়া শইল্যে মাখিয়াম।’

রায়পুর উপজেলার দুইটি ইউনিয়নে (বামনী ও দক্ষিন চরআবাবিল) উপস্বাস্থ্যকেন্দ্র রয়েছে। জরুরি দুইটি কেন্দ্রে চিকিৎসকসহ সব পদ রয়েছে। প্রাচির না থাকায়-প্রায় সময় রাতে জানালার গ্রীল ভেঙ্গে মূল্যবান জিনিষপত্র নিয়ে যায়। অপরদিকে, উত্তর চরবংশি পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের অবস্থা করুন। একজন পরিদর্শিকা প্রতাধিক শতাধিক রুগী দেখতে হচ্ছে। প্রায় ক্লিনিকের একই অবস্থা। এতে উপকূলবাসির দুর্ভোগ লাগবে চরমে পৌছেছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, দক্ষিন চরআবাবিল কেন্দ্রে তিন দিনের জন্য চিকিৎসক দিলেও বামনী স্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎক ৫ বছর নেই। তিনি দুই দিনের ছুটির কথা বলে যুক্তরাষ্ট্রে আছেন ৫ বছর ধরে। পদটিও শুন্য হচ্ছে না, নতুন চিকিৎসকও নিয়োগ দেয়া যাচ্ছেনা। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে গিয়ে একজন চিকিৎসক দায়িত্ব পালন করছেন। উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রের আশপাশের বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, চিকিৎসকের অভাবে এসব স্বাস্থ্যকেন্দ্র মাসের বেশির ভাগ সময় বন্ধ থাকে। নানা সমস্যা।

বামনী উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রের পাশেই শেপালি বেগমের (৬০) বাড়ি। তিনি বলেন, মাসের বেশির ভাগ সময় স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি বন্ধ থাকে। ভবনের এক কক্ষে চিকিৎসকের জন্য নির্ধারিত বাসায় বসবাস করেন পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের আয়া রহিমা বেগম।

রহিমা বলেন, প্রতিদিন তিনি স্বাস্থ্যকেন্দ্রের তালা খোলেন। কোনো দিন পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের ভিজিটর এসে বসেন। আবার কোনো দিন স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজন (মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট) এসে ওষুধ বিতরণ করে চলে যান। এই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎসক নেই।

মঙ্গলবার (৩০ আগষ্ট) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গিয়ে উপজেলার ‘হায়দরগঞ্জ উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রটি খোলা পাওয়া যায়। চিকিৎসকের সহকারী মানষ চক্র বর্তী ওষুধপত্র বিতরণ করতে দেখা যায়। জানতে চাইলে মানষ বলেন, তিনি এখানে উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে কর্মরত। ওষুধপত্র বিতরণ করলেও রোগীর ব্যবস্থাপত্র দেন না তিনি। একজন ডাক্তার সপ্তাহে তিন দিন রোগী দেখেন। এই স্বাস্থ্যকেন্দ্র পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন নীজেই করি। দুটি ভবন রয়েছে পরিত্যাক্ত।

হায়দরগঞ্জ গ্রামের সমাজসেবক তাহসীন হাওলাদার ও আবু ইউসুফ বলেন, এস্বাস্থকেন্দ্রে মাত্র তিনদিন চিকিৎসক থাকেন। বাকি চারদিন চিকিৎসক না থাকায় গরিবরা এখান থেকে তেমন কোনো সেবা পান না। আসবাপত্রও নাই। মঙ্গলবার দুপুরে রুগীদের জন্য আমরা তিনটি বসার চেয়ার ও দুইটি ফ্যান দিয়েছি। সরকারের দেয়া টাকাগুলো কোথায় যায়।? হায়দরগঞ্জ থেকে ১১ কিলোমিটার পার হয়ে রায়পুর শহরে সরকারি হাসপাতালে অনেক রুগী যেতে যেতে মারাও যায়।এ উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রের জন্য ১০ বেডের হাসপাতাল করা হলে উপকূল মানুষগুলো খুবই ইপকৃত হবে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও রায়পুরের সাংসদ এডঃ নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন বলেন, মাজহারুল ইসলাম নামের একজন ডাক্তারকে সরকারি হাসপাতাল থেকে নিয়ে হায়দরগঞ্জ উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে দেয়া হয়েছে। তিনি সপ্তাহে দুইদিন রুগী দেখবেন। রায়পুর হাসপাতাল ও উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে ‘চিকিৎসক না থাকা বিষয়টি মন্ত্রী মহোদয়কে অবহিত করেছি। দেখাযাক কিহয়।

হাসপাতালের প্রশাসনিক বিভাগ জানাযায়, ৫০ শয্যার সরকারি হাসপাতালে ৩১টি অনুমোদিত পদের মধ্যে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার, নার্স, মেডিকেল টেকনোলোজিস্ট, স্টোর কিপার, অফিস সহকারী, স্বাস্থ্য পরিদর্শক ৪ জন এবং ৩৪টি কমিউনিটি ক্লিনিকের ৫৫টি পদে ২৬ জনের পদ শূন্য রয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার বাহারুল আলম বলেন, চিকিৎসক, ফার্মাসিস্ট ও অফিস সহায়কের পদগুলো শূন্য রয়েছে। বর্তমানে চিকিৎসকের সহকারীরা (উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট) স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলো চালাচ্ছেন। হায়দরগঞ্জ উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে দুই দিনের জন্য একজন ডাক্তার দিলেও বামনী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ডাক্তার বিদেশ রয়েছে। সে পদটি শূণ্য না হওয়ায় হাসপাতাল থেকে একজন ডাক্তার রুগী দেখেন।

Share this...

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
ঢাকা অফিসঃ ১৬৭/১২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, মতিঝিল ঢাকা- ১০০০ আঞ্চলিক অফিস : উত্তর তেমুহনী সদর, লক্ষ্মীপুর ৩৭০০
Durbar দূর্বার 1st gif ad biggapon animation বিজ্ঞাপন এ্যানিমেশন
  • Social