টেস্ট সিরিজে সেরা বোলার তাইজুল

Print Friendly

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে ১-০ ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। এতে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি টাইগার স্পিনার তাইজুল ইসলাম। দুই ম্যাচের তিন ইনিংসে ১১২ দশমিক ৫ ওভার বল করে ৩৭৮ রানের বিনিময়ে ১২ উইকেট নিয়েছেন বাঁহাতি বোলার। তিন ইনিংসের কোনটিতেই পাঁচ বা ততোধিক উইকেট নিতে পারেননি তিনি। তার সেরা বোলিং ৭৬ রানে ৪ উইকেট।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ৬৭ দশমিক ৩ ওভার বল করে ২১৯ রানে ৪ উইকেট নেন তাইজুল। ওই ম্যাচে রান উৎসব করে দুই দলের ব্যাটসম্যানরা। এর মধ্যেও এক ইনিংস হিসেবে তাইজুলই সর্বোচ্চ উইকেট নিয়েছেন।

এরপর ঢাকা টেস্টে স্পিন সহায়ক পিচে দুই ইনিংসে ৮ উইকেট নেন তাইজুল। প্রথম ইনিংসে ৮৩ রানে ৪ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৭৬ রানে ৪ উইকেট নেন তিনি।

তাইজুলের পর টেস্ট সিরিজে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি শ্রীলঙ্কার বাঁহাতি স্পিনার রঙ্গনা হেরাথ। ৮৮ দশমিক ৩ ওভারে ৩১০ রানে ৯ উইকেট নিয়েছেন তিনি।৮ উইকেট নিয়ে তালিকার তৃতীয় স্থানে অবস্থান শ্রীলঙ্কার অফস্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়ার। চট্টগ্রাম টেস্টে না খেললেও, ঢাকার ম্যাচে অভিষেক হয় তার। আর অভিষেক ম্যাচেই বাজিমাত করেন তিনি। ম্যাচে ১৫ ওভার বল করে ৪৪ রান দিয়ে ৮ উইকেট নিয়েছেন ধনঞ্জয়া।শ্রীলঙ্কার হয়ে অভিষেক ম্যাচে সেরা বোলিং ফিগারের রেকর্ড এটি।

অভিষেক ম্যাচের রেকর্ড স্পর্শ করতে গিয়ে বাংলাদেশকে মূলত ধসিয়ে দিয়েছেন ধনঞ্জয়া। প্রথম ইনিংসে ২০ রানে ৩ উইকেট নেয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসে ২৪ রানে ৫ উইকেট নেন তিনি। তাতেই ২১৫ রানে ঢাকা টেস্ট হেরে সিরিজ হাতছাড়া করে প্রথম ম্যাচে ড্র করা বাংলাদেশ। তালিকার পঞ্চম স্থানে আছেন দুই ম্যাচে চার ইনিংস বোলিং করা লঙ্কান পেসার সুরাঙ্গা লাকমাল। ৪৭.৫ ওভারে ১২৯ রান খরচ করে ৬টি উইকেট নিয়েছেন এই বোলার। অন্যদিকে ২ ম্যাচে তিন ইনিংসে বল করে ৬টি উইকেট তুলে নিয়ে পঞ্চম স্থানে আছেন মুস্তাফিজ। কাটারমাস্টার খ্যাত এই তারকা ৬০ ওভার বল করে ১৭৯ রান দিয়েছেন।