সেনাবাহিনীকে বিপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে

Print Friendly
সেনাবাহিনীকে বিপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন- আমরা মাথা উঁচু করে চলতে চাই। সেনাবাহিনী জনগণের অবিচ্ছেদ্য অংশ। সেনাবাহিনীকে বিপন্ন মানুষের পাশে দাড়াতে হবে কারণ তারা দেশের সন্তান। তোমরা দায়িত্ব পালনে সদা প্রস্তুত থাকবে। সিনিয়রদের নির্দেশ মেনে চলবে।

বুধবার (২৭ ডিসেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রামের ভাটিয়ারীর বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে ৭৫তম বিএমএ দীর্ঘমেয়াদি কোর্সের কমিশনপ্রাপ্তি উপলক্ষে আয়োজিত রাষ্ট্রপতি প্যারেডে প্রধান অতিথির ভাষণে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিকে (বিএমএ) বিশ্বমানের হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। এর মাধ্যমে প্রশিক্ষিত ও আধুনিক সেনাবাহিনী বিশ্বদরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে।

কমিশনপ্রাপ্ত নবীন অফিসারদের অভিনন্দন জানিয়ে হাসিনা বলেন, ১৯৭৫ সালে জাতির জনক শেখ মুজিবর রহমান ১১ জানুয়ারি প্রথম প্যারেডে উপস্থিত ছিলেন। তিনি তার বক্তৃতায় বলেছিলেন, পেশাগতভাবে দক্ষ নৈতিক গুণাবলী সম্বলিত হয়ে গড়ে উঠতে। আমরা সেই লক্ষ্যে কাজ করে চলেছি। এ সময় প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে সেনাবাহিনীর ভূমিকার প্রশংসা করে তাদের ধন্যবাদ জানান।

একইসঙ্গে ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয়ও ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে সকাল হেলিকপ্টারযোগে বিএমএতে এসে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দুপুর ১২টার সময় রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেনাবাহিনীর ৭৫তম বিএম দীর্ঘমেয়াদি কোর্সের অফিসার ক্যাডেটদের কমিশনপ্রাপ্তি উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

এর আগে গত ২৪ ডিসেম্বর নৌবাহিনীর একটি কর্মসূচিতে যোগ দিতে চট্টগ্রাম এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। ওই দিন বিকালে তিনি চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের প্রয়াত সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাসায় আসেন শোকসন্তপ্ত পরিবারকে সমবেদনা জানাতে।