চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নকে পৌরসভা ঘোষণার গেজেট প্রকাশ

Print Friendly

FB_IMG_1512103187992

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদকে পৌরসভা ঘোষণার একটি গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে।

আজ একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে বিষয়টি জানা গেছে। বিষয়টি জানার পর এলাকাজুড়ে আনন্দের জোয়ার বইছে।

এর আগে গত বুধবার (২২ নভেম্বর) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় -স্থানীয় সরকার বিভাগ পৌর-২ শাখা প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ গেজেট প্রকাশ করা হয়।

গেজেট সূত্রে জানা যায়, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ/ ১৬ নভেম্বর২০১৭/  এস আর ও নং ৩২০ আইন/২০১৭।- স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন ২০০৯ (২০০৯ সনের ৫৮নং আইন) বলিয়া ধারা ৩ এর উপ-ধারা (১) এর ক্ষমতাবলে সরকার লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলাধীন চন্দ্রগঞ্জের পল্লী এলাকার  ১৩টি মৌজা নিয়ে চন্দ্রগঞ্জ  পৌরসভা গঠনের লক্ষ্যে অভিপ্রায় ব্যক্ত করা হয়।

পৌর শহরের আওতাভুক্ত মৌজার এলাকা গুলো হলো, আমানী  লক্ষ্মীপুর,  তৈরবনগর, পাঁচপাড়া, দেওপাড়া, পশ্চিম লতিফপুর, রামকৃষ্ণপুর, সেখপুরা, ছোট রশিদপুর, গনিপুর, রাজাপুর, রামচন্দ্র পুর, বসুদুহিতা ও দক্ষিন ধন্যপুর।

এতে আরো জানানো হয়, উক্ত ধারা ৩  উপ-ধারা (৩) এর বিধান মোতাবেক শহর এলাকা ঘোষণার অভিপ্রায় সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন প্রকাশের ১ মাসের মধ্যে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ এ প্রস্তাবের বিরুদ্ধে লিখিত আপত্তি জানাতে পারবেন।

FB_IMG_1512103193639

এদিকে গেজেট ঘোষনার পর চন্দ্রগঞ্জ এলাকার মানুষের মাঝে আনন্দের জোয়ার বইছে। পৌরসভা গঠনের ফলে এলাকায় শিক্ষা, সংস্কৃতি, ব্যবসা-বাণিজ্যসহ জীবনযাত্রার মান আরো সমৃদ্ধি হ  বলে জানান স্থানীয়রা।

উল্লেখ্য, চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়ন একসময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাস বহুল এলাকা হিসেবে পরিচিত ছিলো। পরে সন্ত্রাস নির্মূলের নিমিত্তে একটি থানা স্থাপন করা হয়। প্রশাসন ও সাংবাদিক ও স্থানিয়দের প্রচেষ্টায় সন্ত্রাস নিমূল করা হয়। তবে উদ্ধার হয়নি সন্ত্রাসীদের বিপুল পরিমান অস্ত্র।  চন্দ্রগঞ্জ কে পৌরসভা ঘোষণা করায় বাংলাদেশ সরকার জননেত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগতম এ অভিনন্দন জানান এলাকাবাসী।