উ. কোরিয়াকে একঘরে করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

Print Friendly

কোণঠাসা করতে উ. কোরিয়াকে একঘরে করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সব দেশকে কূটনৈতিক এবং বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সম্প্রতি উত্তর কোরিয়া সবচেয়ে শক্তিশালী এবং আধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের পর দেশটিকে কোণঠাসা করতেই এমন ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। খবর বিবিসি।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে মার্কিন দূত নিকি হ্যালি বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প চীনের প্রেসিডেন্টকে পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে তেল সরবরাহ বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র দ্বন্দ্ব চায় না। কিন্তু যদি যুদ্ধ শুরু হয় তবে উত্তর কোরিয়ার শাসন ব্যবস্থা ধ্বংস হয়ে যাবে।

বুধবার দু’মাসের ব্যবধানে উৎক্ষেপণ করা সবচেয়ে দীর্ঘ পাল্লার আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক মিসাইলের পরীক্ষা সফল হয়েছে এবং তা যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানতে সক্ষম বলে দাবি করে পিয়ংইয়ং।

উত্তর কোরিয়ার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, বুধবার ভোরে হুয়াসং-১৫ মিসাইলটি উৎক্ষেপণ করা হয়। ক্ষেপণাস্ত্রটি ৪ হাজার ৪৭৫ কিলোমিটার উচ্চতায় পৌঁছে বুধবার সকালে প্রায় ৫৩ মিনিট পরে ৯৬০ কিলোমিটার দূরে জাপানের জলসীমায় পড়েছে।

এ পর্যন্ত পরীক্ষা চালানো মিসাইলের মধ্যে এটাই সবচেয়ে শক্তিশালী ও আধুনিক বলে দাবি করা হয়েছে। তবে উত্তর কোরিয়ার এমন দাবি যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

এর আগে সেপ্টেম্বরে একটি ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে পিয়ংইয়ং। ওই একই মাসে দেশটি তাদের ষষ্ঠ পারমাণবিক অস্ত্রের পরীক্ষা চালায়। বিশ্বজুড়ে নিন্দা ও নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও একের পর এক পারমাণবিক এবং ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া।

উত্তর কোরিয়ার ওই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ঘটনায় জরুরি বৈঠক ডাকে নিরাপত্তা পরিষদ। সেখানেই দেশটির সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করার আহ্বান জানানো হয়।

নিকি হ্যালি সতর্ক করে বলেন, উত্তর কোরিয়ার চলমান আগ্রাসন নানাভাবে অস্থিতিশীলতা তৈরি করছে। আমরা চাই চীন এ বিষয়ে কিছু করুক। তিনি জানান, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে ফোন করে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার আহ্বান জানিয়েছেন।